পাবলিক রিলেশন পেশা হিসেবে কেমন?

৭ই মে, ২০১৯ || ০৪:৫৭:৩৮
19
Print Friendly, PDF & Email

পাবলিক রিলেশন (পিআর) পেশা হিসেবে ভালো। যদি নিজের যোগাযোগ দক্ষতা চমৎকার হয়, তাহলে পেশা হিসেবে পাবলিক রিলেশন তার জন্য আদর্শ হতে পারে। বিভিন্ন লোকজনের সঙ্গে দেখা করা, মিষ্টি কথা, আদব-কায়দা এ ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই সৃজনশীল ব্যক্তিরা এ পেশা নিয়ে স্বপ্ন দেখতে পারেন।

পাবলিক রিলেশন কী: পাবলিক রিলেশন হচ্ছে- একটি ব্র্যান্ডকে বিশ্বের মানুষের কাছে প্রোমোট করা এবং সমাজে সেই ব্র্যান্ডের ‘ইমেজ’কে রক্ষা করা। কারণ পাবলিক রিলেশনের এজেন্টদের কর্মকাণ্ডে যে কোন তারকা বা সংস্থার খ্যাতি আকাশচুম্বী হতে পারে বা ধ্বস নামতে পারে।
পেশা হিসেবে কেমন: পাবলিক রিলেশনের মতো যোগ্য ক্যারিয়ার খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তবে এটি চ্যালেঞ্জিং একটি পেশা। সবক্ষেত্রে যোগাযোগ রক্ষা করার মতো ক্ষমতা থাকতে হয়। একজন পিআর কর্মীর দায়িত্ব হচ্ছে একটি সংস্থা বা তারকার খ্যাতিকে গড়ে তোলা। একই সঙ্গে সব ধরনের কলঙ্ক পাবলিসিটি থেকে রক্ষা করার দায়িত্বও তার।

Businessman introducing new colleagues in the office; Shutterstock ID 168170963; Department: creative; Client: Aljazeera Training Center; Project: high res images

বৈশিষ্ট্য: এ পেশার জন্য আত্মবিশ্বাসী হতে হয়। বিভিন্ন ধরনের মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করতে হয়। একই সঙ্গে ক্রিয়েটিভ (সৃজনশীল) এবং সমস্যা সমাধানের ক্ষমতা থাকতে হয়। এ জন্য তাকে বিভিন্ন খবরের কাগজ, নিউজ চ্যানেল ও বিভিন্ন মিডিয়া হাউসের সঙ্গে সুসম্পর্ক রাখতে হয়।

কাজের ধরন: পিআর কর্মীর দু’ধরনের দায়িত্ব থাকে— ব্র্যান্ড প্রোমোশন এবং ব্র্যান্ড প্রোটেকশন। ব্র্যান্ড প্রোমোশনের ক্ষেত্রে তাকে কোনো সংস্থা বা ব্যক্তির ইমেজ গড়ে তুলতে হবে। জনসাধারণকে ক্লায়েন্টের প্রতি আরও উৎসাহিত করতে হবে। সংস্থা বা ব্যক্তিকে জনগণের কাছে রোমাঞ্চকর ব্র্যান্ডে রূপান্তরিত করতে হবে। গণমাধ্যম যেন ক্লায়েন্টের ভালো খবর প্রকাশ করে, ক্লায়েন্টের মাত্রাতিরিক্ত সমালোচনা না করে, সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে।
প্রচার মাধ্যম: এ পেশায় ‘প্রেস রিলিজ’ বা ‘কনফারেন্স’র মধ্য দিয়ে প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে। এমনকি সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টের মধ্য দিয়ে ইমেজকে ‘ম্যানেজ’ করারও দায়িত্ব নিতে হবে। ক্লায়েন্টকে জনসমক্ষে আরও বেশি ‘সমাজ-সচেতন’ হিসেবে তুলে ধরতে হবে। পাশাপাশি ক্লায়েন্টের সুনাম অক্ষুণ্ন রাখার ব্যবস্থাও করতে হবে। যে কোন কলঙ্ক বা বির্তক থেকে রক্ষা করতে হবে। সোশ্যাল মিডিয়া, রিভিউ, রেটিং সাইট বা বিভিন্ন মিডিয়ায় ক্লায়েন্টের ‘ইমেজ’ অক্ষুণ্ন রাখতে সচেষ্ট হতে হবে। সংস্থা বা ব্যক্তি কোনরকম সঙ্কটে পড়লে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া থেকে রক্ষা করতে হবে।

পেশাগত যোগ্যতা: সর্বপ্রথম দরকার উৎকৃষ্ট মানের যোগাযোগ দক্ষতা। এছাড়া গবেষণা করার ক্ষমতা প্রয়োজন। ইউএসপি (ইউনিক সেলিং পয়েন্ট) কী, সে সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। এমনকি ভালো লেখার ক্ষমতা থাকতে হবে। ক্লায়েন্টের জন্য প্রেস রিলিজ দক্ষভাবে লিখতে হবে, যাতে সেটা দর্শকের নজর কাড়ে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: সাধারণত পিআর সংস্থাগুলো যে কোন বিষয়ে গ্র্যাজুয়েশন চায়। বিষয়ের কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তবে সৃজনশীল পেশা হিসেবে সাহিত্য, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ইত্যাদি বিষয়ে স্নাতক হলে বেশি ভালো হয়।

বেতন কেমন: এই পেশার বেতন নির্ভর করবে কর্মীর অভিজ্ঞতা এবং দক্ষতার ওপর। সাধারণত বছরে ৪-১২ লাখ টাকা পর্যন্ত বেতন পাওয়া যায়।