‘খাঁটি’ সৃজিতের থ্রিলার, ভিঞ্চিদা মুভি

৭ই মে, ২০১৯ || ১০:৩০:২৭
32
Print Friendly, PDF & Email

কোনও এক মেকআপ আর্টিস্ট সৃজিতের মুখের মাপ জেনে প্রস্থেটিকে একটি মুখোশ তৈরি করেছেন কি? সেই মুখোশে মাঝে-মাঝে শ্যুটিং ফ্লোরে দেখা যায় কাউকে। তৈরি হয় ‘ইয়েতি অভিযান’ বা ‘শাহজাহান রিজেন্সি’। মানে ৭০ শতাংশ সৃজিত। কিন্তু কোথাও কম ঠেকে। ‘ভিঞ্চিদা’ যিনি তৈরি করেছেন, তিনি কিন্তু খাঁটি সৃজিত মুখোপাধ্যায়। থ্রিলারের হাত যাঁর পাকা। ছবি দেখলে টের পাওয়া যায়, নিজেই দর্শক হিসেবে উপভোগ করতে শুরু করেছিলেন সংলাপ লিখতে বসে। একসময় কলমে ম্যাজিক জুড়েছে।


সিনেমাপ্রেমীর বারো মাসে তেরো আড্ডার একটি বিষয় হল, সৃজিত কি আরেকটা ‘বাইশে শ্রাবণ’ বা ‘চতুষ্কোণ’-এর মতো ঝাঁঝালো ছবি বানাতে পারবেন? ‘ভিঞ্চিদা’-র ইঞ্চি-ইঞ্চিতে সৃজিত বোঝালেন, তার পরিচালক সত্তা ইচ্ছোমতো নিদ্রা যায়, কিন্তু মৃত নয়। তবে ভগবান যদি মারা যান, তা হলে কি কোনও এক সুপার হিউম্যান হাতে তুলে নিতে পারে বিচারের দায়িত্ব? সে খেলায় মেতেছে আদি বোস (ঋত্বিক)। খেলা সাজাতে সে দারস্থ মেকআপ আর্টিস্ট ভিঞ্চিদার কাছে, যে প্রস্থেটিকে ধরুন প্রসেনজিৎকে রুদ্রনীল বা রুদ্রনীলকে প্রসেনজিৎ করে দিতে পারে। বাকিটা অপরাধ-পাল্টা অপরাধের পথ ধরে কোনটা ন্যায়-কোনটা অন্যায় খোঁজার চক্রবূহ্য। প্রসঙ্গত এ ছবিতে টলিউডের মুখে আয়নাটা দিব্যি ধরেছেন সৃজিত। সোহিনী-রুদ্রনীলের প্রেমের গান আর ক্লাইম্যাক্সের গান দু’টো অবশ্য অতটা প্রয়োজনীয় বলে মনে হল না। মেকআপ আর্টিস্ট সোমনাথ কুণ্ডু-র হাততালি পাওনা। তুলনায় সৃজিত-অনুপম জুটি এ ছবিতে ফিকে। অভিনয়ের কথায় আসি। রুদ্রনীল ঘোষ না ঋত্বিক চক্রবর্তী কে এগিয়ে? পিচের দু’ প্রান্তে ব্যাট হাতে দু’ জনে। তাঁদের পার্টনারশিপ-ফর্ম দ্রে রাসের মতো। ‘ভিঞ্চিদা’ সৃজিতের ফিরলেন, দেখলেন, জয় করলেন ছবি হয়ে থাকবে, সন্দেহ নেই।