হোটেল বিক্রি করতে পারলেন না ট্রাম্প, কিন্তু কেন?

7
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
ব্যবসায় মন্দা তাই চার বছর আগে তৈরি করা হোটেল বিক্রি করতে চেয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত ট্রাম্প ইন্টারন্যাশনাল হোটেলের জন্য ৫০০ মিলিয়ন ডলার দাম হাঁকিয়ে পচ্ছন্দসই ক্রেতা পাননি তিনি। তাই আপাতত হোটেল বিক্রি স্থগিত করেছেন ট্রাম্প। খবর ডেইলি মেইলের।


হোটেলটি ট্রাম্পের ছেলে-মেয়েরা চালায়। কিন্তু হোটেলটি বিক্রি করে দিতে গত বছরের অক্টোবরে আবাসন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান জোন্স ল্যাং লাসালেকে নিয়োগ দেন ট্রাম্প। ঐতিহাসিক একটি পোস্ট অফিসকে ২৬০ রুমের হোটেলে রূপান্তর করা হয়।

প্রাথমিকভাবে চলতি বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত দাম হাঁকানোর সুযোগ ছিল। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মার্চ মাসে আবাসন ব্যবসায় রীতিমতো ধস নামে। তাই বন্ধ হয়ে যায় এই খাতের সব ব্যবসা।

এমতাবস্থায় হোটেল বিক্রির সিদ্ধান্ত ‘অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত’ করতে হয়েছে। চলতি সপ্তাহে সিএনবিসিকে লাসাল জানিয়েছে, নয় মাসের চেষ্টার পর এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে। ক্রেতার খোঁজার দায়িত্বে থাকাদের সঙ্গে পরিচিত সূত্র জানিয়েছে, ৫০০ মিলিয়ন ডলারের কাছাকাছি দামও ওঠেনি। তারা জানিয়েছে, কয়েকজন ২৫০ মিলিয়নের কম দাম হাঁকিয়েছেন।

ট্রাম্প ইন্টারন্যাশনাল হোটেলের মালিকানা আসলে ট্রাম্পের নয়। বরং সরকার থেকে লিজ নিয়ে একটি পোস্ট অফিসকে হোটেলে রূপান্তর করা হয়। ২০১১ সালে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে ওই ভবনটি লিজ নেন ট্রাম্প। ৬০ বছর মেয়াদী ওই লিজ অনুযায়ী প্রতিবছর সরকারকে ৩ মিলিয়ন ডলার করে দিতে হবে।

২০১৬ সালে প্রায় ২১০ মিলিয়ন ডলার খরচ করে এই ভবনটি হোটেল বানান ট্রাম্প। এমনকি ২০১৬ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জেতার কয়েক সপ্তাহ আগে হোটেলটির ফিতা কাটেন ট্রাম্প। যাই ঘটুক না কেন ওয়াশিংটনে থাকার প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে ওই ভবনটি লিজ নিয়েছিলেন তিনি। তবে এখন সেখান থেকে ব্যবসা গুটাতে চাইছেন ট্রাম্প।