৬ দিন পর পর পরিবারের ১জন বাড়ির বাইরে যেতে পারবেন!

12
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
২০১৯ সালের ১৭ নভেম্বর চীনে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর জানা গেছিল। সেই ঘটনার ১ বছর হয়ে গেছে এর মধ্যেই। এই ১ বছরে করোনা মহামারিতে বিশ্বের ১৩ লাখ মানুষ মারা গেছেন। কিন্তু এই শেষ নয়, শীতের প্রকোপ শুরু হতে না হতেই আবার দ্বিতীয় প্রবাহ চলছে। ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে নতুন করে। আর এবার কড়া লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায়।

সংক্রমণ রোধ করতে এ বারের লকডাউনে ৬ দিন অন্তর পরিবারের একজন সদস্য বাড়ির বাইরে বেরনোর অনুমতি পাবেন, তবে অবশ্যই তার পিছনে যথাযথ কারণ থাকতে হবে। খুব প্রয়োজন থাকলে যদি কাউকে যেতে হয় কোথাও সেক্ষেত্রে মাস্ক বাধ্যতামূলক।

একেবারে বন্ধ থাকবে স্কুল কলেজ-সব সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রাতঃভ্রমণ বন্ধ করতে হবে। পাশাপাশি, বাড়ির পোষ্যদের নিয়েও বাইরে বের হবার ক্ষেত্রে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। লকডাউন চলাকালীন রেস্তোরাঁ, ক্যাফে বন্ধ থাকবে। বিয়ে থেকে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানের লোকসমাগম একেবারে নিষিদ্ধ করা হচ্ছে।

সাউথ অস্ট্রেলিয়ার স্টেট প্রিমিয়ার স্টিভেন মার্শাল জানিয়েছেন, “বহু মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। কিন্তু তাদের কোনও উপসর্গ থাকছে না। তাই সবসময় আমরা কড়া ভাবেই এগোতে চাই। যত দ্রুত সম্ভব এই মারণ ভাইরাসকে দমন করতে হবে, যাতে দ্রুততার সঙ্গে দেশের মানুষ করোনার অভিশাপ থেকে মুক্ত হয়।”

জানা গিয়েছে, দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডের একটি হোটেলে বাইরের দেশ এবং রাজ্য থেকে আসা মানুষকে কোয়ারেন্টাইন করা হচ্ছিল। সেখান থেকেই ২৩ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। সেই সংক্রমণ যাতে আর না ছড়িয়ে পরে, তাই এই কড়া লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।