বইমেলার নাম পরিবর্তন করতে চায় বাংলা একাডেমি

5
Print Friendly, PDF & Email

লিটারেচার ডেস্কঃ
করোনার ভেতরে আয়োজন নিয়েই সংশয় ছিল। তবে সে সংশয় অনেকটাই কেটেছে গত ৫ নভেম্বর বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে ২০২১ সালের অমর একুশে বইমেলায় অংশ নিতে ইচ্ছুক প্রকাশকদের আবেদনপত্র জমাদান শীর্ষক একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর। তবে এখান থেকেই শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। মেলার আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ বলছে, নাম পরিবর্তন কোন ইস্যু নয়, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মেলা সুন্দরভাবে আয়োজন করাটাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

গত ৫ নভেম্বর বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে ২০২১ সালের অমর একুশে বইমেলায় অংশ নিতে ইচ্ছুক প্রকাশকদের আবেদনপত্র জমাদান শীর্ষক একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে বাংলা একাডেমি। সেখানেই আয়োজনের নাম উল্লেখ করা হয়- ‘বাংলা একাডেমি অমর একুশে গ্রন্থমেলা’। এর পরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদ করেন প্রকাশকরা। পরবর্তীতে গত ১৬ নভেম্বর প্রকাশকদের দুইটি সংস্থা বাংলাদেশ জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতি এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি যৌথ বিবৃতিতে এ নাম পরিবর্তনের প্রতিবাদ জানায়। তারা সাতদিনের মধ্যে বাংলা একাডেমিকে এ নাম পরিবর্তন করতে বলে।

এ বিষয়ে মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব এবং বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, কী নামে মেলা হচ্ছে, সেটির চেয়ে বড় আলোচনার বিষয় কীভাবে এই মহামারির মধ্যে মেলা আয়োজন করা হবে। নাম পরিবর্তনের বিষয়ে অবশ্যই আলোচনা হবে। যদি প্রকাশকরা না চান, তাহলে আগের নামে হবে। এটি কোন চূড়ান্ত বিষয় না।  

১৯৭২ সালে মুক্তধারার প্রকাশক চিত্তরঞ্জন সাহার হাত ধরে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অমর একুশে বইমেলার আয়োজন শুরু হয়। নানা পর্যায় অতিক্রম করে ১৯৮৪ সাল থেকে সরাসরি বাংলা একাডেমির তত্ত্বাবধায়নে বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়। সেসঙ্গে এর নামকরণ করা হয় ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’।

২০২০ সালে মেলা উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার ভাষণে গ্রন্থমেলার পরিবর্তে বইমেলা প্রতিশব্দ ব্যবহার করার অনুরোধ করেন। তিনি গ্রন্থমেলার তুলনায় বইমেলা শব্দটিকে শ্রুতিমধুর ও পাঠকপ্রিয় হবে বলে মত প্রকাশ করেন। প্রধানমন্ত্রীর এ আহ্বানে সাড়া দিয়ে ২০২০ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ ঘোষণা দেন, ২০২১ সাল থেকে মেলার নাম হবে ‘অমর একুশে বইমেলা’। যা নিয়ে গত ২৮ অক্টোবর মেলা পরিচালনা কমিটির সভাতেও আলোচনা হয়। এরপরেই গত ৫ নভেম্বর বাংলা একাডেমির বিজ্ঞাপনে মেলার নাম লেখা হয় ‘বাংলা একাডেমি অমর একুশে বইমেলা’।

এ বিষয়ে জ্ঞান ও সৃজনশীল প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ বলেন, নাম পরিবর্তনের বিষয়ে যে সিদ্ধান্তটি চূড়ান্ত হয়নি, সেটি আমরাও জানি। তারা যদি আলোচনা করে নাম নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে বলবো তাদের শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছে। তবে কেন তারা অমর একুশে বইমেলার আগে বাংলা একাডেমি লিখলেন, সেটিরও একটি ব্যাখ্যা দেওয়া উচিৎ। সেসঙ্গে আর কোথাও যেন তারা এটি ব্যবহার না করেন সেটিরও অনুরোধ রইলো।