গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ: শরণংকর ও আইনজীবীকে নোটিশ

8
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের দায়ে শরণংকর ভিক্ষু ও তার আইনজীবীকে লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছেন সাবেক আইনমন্ত্রী ও বার কাউন্সিলের সাবেক সভাপতি এবং সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী সংসদ সদস্য আব্দুল মতিন খসরু। ভিক্ষু শরণংকরের অবৈধ কর্মকান্ডের সমালোচনা করে বিবৃতিদানকারী দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের শীর্ষ নেতৃবৃন্দ এবং চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সংক্ষুব্ধ ব্যক্তিদের প্রতিনিধির পক্ষে তিনি এ নোটিশ জারি করেন।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায় বৌদ্ধ বিহার স্থাপনের নামে ভিক্ষু শরণংকর কর্তৃক অবৈধভাবে সংরক্ষিত বনভূমি, মন্দির ও শশ্মান দখল এবং পাহাড় ও গাছপালা কাটার সমালোচনা করে গতমাসে দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের শীর্ষ সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ বিবৃতি দিলে তা জাতীয় দৈনিকগুলোতে ও অনলাইনে প্রকাশিত হয়। এই বিবৃতি কেন প্রকাশ করা হয়েছে, সেই মর্মে ভিক্ষু শরণংকর তার উকিলের মাধ্যমে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় নোটিশ পাঠান, যার প্রেক্ষিতে তাদেরকে এই আইনী নোটিশ পাঠিয়েছেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী আব্দুল মতিন খসরু।

‘ভিক্ষু শরণংকরের অবৈধ কর্মকান্ডের সমালোচনা করে দেশের বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের দেয়া বিবৃতি প্রকাশের কারণে গণমাধ্যমকে উকিল নোটিশ দেয়া গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপের অপরাধ’ বলে নোটিশে উল্লেখ রয়েছে। সেইসাথে এ ধরণের ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য অপরাধের দায় ও শাস্তির বিষয়েও নোটিশে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গতমাসে বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস-চেয়ারম্যান সুপ্ত ভূষণ বড়ুয়া, বাংলাদেশ বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের সভাপতি ও ঢাকাস্থ কমলাপুর বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ বুদ্ধপ্রিয় মহাথেরো, বুদ্ধিস্ট ফেডারেশনের সভাপতি দিব্যেন্দু বিকাশ চৌধুরী বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকার আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারের অধ্যক্ষ ভিক্ষু সুনন্দপ্রিয় এবং বৌদ্ধ কৃষ্টি প্রচার সংঘের মহাসচিব সাবেক ডিআইজি পি আর বড়ুয়া স্বাক্ষরিত তিন পৃষ্ঠার বিবৃতিতে ভিক্ষু শরণংকরের অবৈধ কর্মকান্ড বৌদ্ধ ধর্মীয় দৃষ্টিকোণ থেকে সমর্থনযোগ্য নয় এবং এহেন কাজ মহামতি বুদ্ধের অহিংসা, করুণা ও মৈত্রীর বাণীকে খর্বকারী বলে বর্ণনা করা হয়।