সুযোগ-সুবিধা দিয়েছি; ফলাফল আনার দ্বায়িত্ব ফুটবলারদেরঃ সালাউদ্দিন

4
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক রিপোর্টঃ
‘মুজিববর্ষ ফিফা আন্তর্জাতিক ফুটবল সিরিজ’ কে ঘিরে ছিল সংবাদ সম্মেলন। কিন্তু সংবাদ সম্মেলনের সিংহভাগ সময়ে বাফুফে কর্তারা জবাব দিলেন জাতীয় দলের পারফরম্যান্স এবং সংগঠক হিসেবে তাদের সাফল্য-ব্যর্থতাবিষয়ক প্রশ্নের। মাঠে জামাল ভুঁইয়াদের পারফরম্যান্স দিয়েই মূল্যায়ন করা হয় বাফুফের মসনদে থাকা কমিটিকে। সর্বশেষ নির্বাচনের আগেও কাজী সালাহউদ্দিনের প্যানেলকে তাড়িয়ে বেড়িয়েছে এসব প্রশ্ন। টানা চার বার নির্বাচিত হওয়া কাজী সালাহউদ্দিনকে গতকালও আবার নিজস্ব ব্যাখ্যা দিতে হল।

বাফুফে সভাপতির মতে, জাতীয় দলের কোচিং স্টাফের বহরে যোগ হয়েছে একঝাঁক বিদেশি কোচ। সুযোগ-সুবিধা বেড়েছে অনেক। সার্বিক দিক বিবেচনায় মাঠে ফলাফল আনার দায়িত্বটা তাই বর্তাচ্ছে ফুটবলারদের ওপরই। নেপালের বিপক্ষে জাতীয় দলের কাছে ভালো ফলাফল প্রত্যাশা করছেন সালাহউদ্দিন।

আগামী ১৩ ও ১৭ নভেম্বর ‘মুজিববর্ষ ফিফা আন্তর্জাতিক ফুটবল সিরিজ’-এ নেপালের বিরুদ্ধে লড়বে বাংলাদেশ দল। সিরিজের ঘোষণা দিতে গিয়ে বাফুফে সভাপতি জোর দিলেন খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের ওপরই। তিনি বলেন, ‘সব খেলোয়াড়ই মাঠে নামেন খেলায় জেতার জন্য। এখন একজন প্রেসিডেন্ট বা আয়োজকদের কেউ তো গিয়ে খেলাটা জিতিয়ে দিতে পারবেন না! মাঠের খেলাটা খেলতে হবে খেলোয়াড়দের। সম্প্রতি দেখেছেন কেমন সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে খেলোয়াড়দের, এখন প্রতিদানটা দেওয়ার পালা তাদের।’

নিজেদের খেলোয়াড়ি জীবনে কাজী সালাহউদ্দীন-সালাম মুর্শেদীদের নিত্যবসবাস ছিল ফেডারেশনের দারিদ্র্যের সঙ্গে। সে তুলনায় এখন জামাল ভুঁইয়াদের সুযোগ-সুবিধার ফারাক বিস্তর, গত শনিবার জাতীয় দলের অনুশীলন ঘুরে এমনই উপলব্ধি বাফুফে-প্রধানের।

এতসব সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার পর খেলোয়াড়দের কাছে বাফুফে সভাপতির প্রত্যাশাও উঁচুতে। তিনি বলেন, ‘আমাদের সময়ে প্রতি দিনে তিন ডলার করে ভাতা দেওয়া হতো, যেটা কখনো খরচ দেখিয়ে দেওয়াও হতো না আমাদের। সেখানে ফুটবলাররা ভাতা পাচ্ছে নিয়মিত। দুপুরে কোচের সঙ্গে কথা হলো ভাতাসহ অনেক বিষয়ে, লিগ নিয়েও কথা হয়েছে। আমার কথা, তোমরা যা চাইছো, তাই দেব। তোমাদেরও এখন প্রতিদান দিতে হবে।’ গত শনিবার ফুটবলারদের সঙ্গে মিটিংয়েও সালাহউদ্দিন বলেছেন, মাঠে সবাইকে শতভাগ দিতে হবে।