কৃষ্ণাঙ্গ মেয়ে ‌‘হোয়াইট হাউসে’, ইতিহাসে কমলা হ্যারিস!

5
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন জো বাইডেন, আর তার রানিংমেট কলমা হ্যারিস হয়েছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট। এর মধ্য দিয়ে দেশটির ইতিহাসে নতুন এক অধ্যায় সূচনা করলেন হ্যারিস। কেননা কমলা হ্যারিসই হলেন দেশটির প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে এর আগে আর কোন নারী ক্ষমতার এতো উচ্চাসনে আসীন হননি।

নির্বাচনে জয়ী হয়ে আমেরিকার ২৫০ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনো কৃষ্ণাঙ্গ নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হলেন ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক এ সিনেটর। এর আগে ১৯৮৪ সালে ডেমোক্রেটিক পার্টির জেরালডিন ফেরারো ও ২০০৮ সালে রিপাবলিকান পার্টির সারা পলিন ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করেছিলেন। কিন্তু তাদের কেউই নির্বাচিত হতে পারেননি। এছাড়া ২০১৬ সালে হিলারী ক্লিনটনও প্রেসিডেন্ট পদে ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে হেরে যান।

নির্বাচিত হওয়ার পর পরই হ্যারিস সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যায়, কমলা আনন্দের সঙ্গে জো বাইডেনকে ফোন করে বলছেন, ‘আমরা জিতেছি, আমরা জিতেছি, জো। তুমি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছো।’

ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক সিনেটর কমলা হ্যারিস অবশ্য ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার আগেই একাধিক রেকর্ড ভেঙেছেন। তিনিই সানফ্রান্সিকোর প্রথম মহিলা ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি, আবার তিনিই প্রথম ক্যালিফোর্নিয়ার প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ অ্যাটর্নি জেনারেল। দুই বছর এই দায়িত্ব পালন করেন হ্যারিস।

কমলা হ্যারিসের জন্ম ১৯৬৪ সালে ২০ অক্টোবর ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ওকল্যান্ডে। পিতা ডোনাল্ড জে হ্যারিস জ্যামাইকান বংশোদ্ভূত আর মা ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান।

হার্ভাড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিষয়ে পড়াশুনা করেছেন তিনি। পড়াশুনা শেষে ৮ বছর অ্যালামেডা কাউন্টি ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির অফিসে কাজ করেন। ২০০৪ সালে তিনি সানফ্রান্সিসকোর ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি নিযুক্ত হন। কাজ করেন ২০১১ সাল পর্যন্ত। ক্যালিফোর্নিয়ার অ্যাটর্নি হিসেব কাজ করেন ২০১১ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত।