এবার বেলজিয়ামে নবীজী’র ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রদর্শন করলেন শিক্ষক

4
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক রিপোর্টঃ
বিশ্বব্যাপী ফ্রান্স বয়কটের যে আন্দোলন চলছে তার শুরুটা হয়েছিল এক শিক্ষক কর্তৃক নবীজী’র ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রদর্শনের জেরে। তাকে তারই এক ছাত্র জবাই করে হত্যা করলে প্রতিবাদে ফ্রান্সও ইসলামের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে। ঠিক একইরকম কাণ্ড ঘটলো এবার বেলজিয়ামে। সেখানকার একটি স্কুলে এবার হযরত মুহাম্মাদ (সা:)-এর ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রদর্শন করেছেন শিক্ষক। এ ঘটনার পরপরই স্কুল শিক্ষককে তাৎক্ষণিক সাময়িক বরখাস্ত করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

ব্রাসেলসের মোলেনবিক সেন্ট-জিন এলাকার একটি স্কুলে এ ঘটনা ঘটে বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটির মুখপাত্র। বিতর্কিত ফরাসি ম্যাগাজিন শার্লি এবদো সম্প্রতি মহানবীকে যেসব ব্যঙ্গাত্মক কার্টুন প্রকাশ করে ওই শিক্ষক তার একটি কার্টুন পঞ্চম ও ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের দেখান। একই কাজ করে কীভাবে একজন ফরাসি স্কুলশিক্ষক নিহত হন তারও বর্ণনা দেন ওই শিক্ষক।

ওই শিক্ষক ক্লাসে মহানবীর অবমাননাকর কার্টুন প্রদর্শন করার পর দুই থেকে তিনজন শিক্ষার্থীর অভিভাবক স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছে এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ জানান। এরপরই তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

মোলেনবিকসের মেয়রের মুখপাত্র আরো বলেন, একটি বিতর্কিত ছবির কারণেই আমারা তার বিরুদ্ধে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখানে নবীর কোনো ছবি না হয়ে অন্য কোনো বিতর্কিত ছবি থাকলেও এক ব্যবস্থা নিতাম।

সম্প্রতি ফ্রান্সের একটি স্কুলে শিক্ষার্থীদের সামনে মহানবীর ব্যঙ্গাত্মক কাটুন প্রদর্শন করেন স্যামুয়েল প্যাটি নামে এক শিক্ষক। এর জেরে হামলায় তিনি নিহত। পরে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ওই হত্যাকাণ্ডের জন্য তার দেশের ‘উগ্র’ মুসলমানদের দায়ী করেন।

কার্টুন এবং ইসলাম নিয়ে কুটূক্তির জেরে বিশ্ব জুড়ে ম্যাক্রাঁর বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় বয়ে যাচ্ছে। বয়কট করা হচ্ছে ফরাসি পণ্য।