টোকিও অলিম্পিকে সাইবার হামলা চালানোর চেষ্টার অভিযোগ রাশিয়ার বিরুদ্ধে

14
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক:
২০২১ সালের টোকিও অলিম্পিকে সাইবার হামলা চালিয়ে গোটা আয়োজন ব্যাহতের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে রাশিয়ার বিরুদ্ধে। অভিযোগ করেছে ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র। তাদের দাবি, রাশিয়া সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা জিআরইউ এই সাইবার অপরাধের সাথে দায়ী। তবে, রাশিয়া এখনো এ নিয়ে কোন বক্তব্য দেয়নি।

হ্যাকিংয়ের ব্যাপারে রাশিয়ার বেশ নাম ডাক সারা বিশ্বে। নানা রাজনৈতিক ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মিডিয়া ও ক্রীড়া সংস্থায় অনলাইনে আক্রমণের পেছনে এই রাশিয়ান হ্যাকাররাই যে দায়ী অধিকাংশ ক্ষেত্রে!
এবার তাদের লক্ষ্য টোকিও অলিম্পিক। রাশিয়ার হ্যাকাররা নাকি প্রস্তুত নিচ্ছে টোকিও অলিম্পিক গেমসকে ব্যাহত করার। এই অভিযোগ করেছে ব্রিটেন ও যুক্তরাষ্ট্র। তাদের অভিযোগ রাশিয়ার সেনাবাহিনী ও তাঁদের গোয়েন্দা সংস্থা-জিআরইউ এই ধরনের বিদ্বেষপূর্ণ সাইবার কার্যক্রমের জন্য দায়ী।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের এটর্নি জেনারেল জন ডেমার্স এক বিবৃতিতে রাশিয়ার এই সাইবার অপরাধের কথা তুলে ধরেন। এ সময় তিনি রাশিয়ার সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা জিআরইউ-এর সম্পৃক্ততা নিশ্চিত করেন।

জন ডেমার্স বলেন, আমাদের কাছে খবর আছে যে টোকিও অলিম্পিককে ব্যাহত করার চেষ্টা করছে রাশিয়া। আর এর পেছনে তাদের সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থা জিআরইউ জড়িত। মূলত ছয় জনের একটা দল এই হ্যাকিংয়ে কাজ করছে।

তবে, টোকিও অলিম্পিকে সাইবার হামলা চালানোর পরিকল্পনা নাকি অনেক আগে থেকেই চলে আসছে বলে জানান এটর্নি জেনারেল।

ডেমার্স আরো বলেন, হ্যাকারদের পরিকল্পনায় টোকিও অলিম্পিক অনেক আগে থেকেই ছিলো। করোনা ভাইরাসের কারণে অলিম্পিক পিছিয়ে যাওয়ায় তাদেরও পরিকল্পনা পিছিয়ে যায়। কিন্তু যেহেতু এখন ২০২১ সালের ২৩ জুলাই অলিম্পিকের তারিখ চূড়ান্ত হয়েছে তাই তারা আবার হ্যাকিংয়ের নানা পরিকল্পনা করছে।

এর আগেও জিআরইউ ২০১৮ সালে দক্ষিণ কোরিয়ায় অনুষ্ঠিত শীতকালীন অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাইবার হামলা চালায়।