সেনাবাহিনীর সাংগঠনিক কাঠামো বিন্যাস ও আধুনিকায়ন চলছে: সেনাপ্রধান

৭ই অক্টোবর, ২০২০ || ০৯:০৪:২১
27
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
বর্তমান ভূ-রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে একটি আধুনিক ও সক্ষম সেনাবাহিনী গঠনের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। সেনাবাহিনীর সাংগঠনিক কাঠামো বিন্যাস ও পরিবর্তনের পাশাপশি আধুনিকায়নের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

বুধবার (৭ অক্টোবর) কুমিল্লায় ৩৩ পদাতিক ডিভিসনে রেজিমেন্টাল কালার প্রদান অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৬টি ইউনিটকে রেজিমেন্টাল কালার দেন তিনি।

সকালে কুমিল্লা সেনানিবাসের এম আর চৌধুরী প্যারেড গ্রাউন্ডে সেনাবাহিনী প্রধান পৌঁছালে ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল আহম্মদ তাবরেজ শামস চৌধুরী তাঁকে অভ্যর্থনা জানান। পরে প্যারেড কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্ণেল আসিফ আজমিনের নেতৃত্বে একটি চৌকষ দল কুচকাওয়াজ ও সেনা প্রধানকে সালাম জানান।

এ সময় দেওয়া বক্তব্যে রেজিমেন্টাল কালার পাওয়া ইউনিটগুলোকে অভিনন্দন জানিয়ে সেনপ্রধান বলেন, রেজিমেন্টাল কালার প্রাপ্তি যে কোন ইউনিটের জন্য একটি বিরল সম্মানের।

তিনি কর্মদক্ষতা ও পরিশ্রম দিয়ে দেশের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত থাকতে ইউনিটগুলোকে নির্দেশনা দেন।

জেনারেল আজিজ আহমেদ জানান, ফোর্সেস গোল ২০৩০’র আলোকে সেনাবাহিনীর ফায়ার সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য দূরপাল্লার এমএলআরএস ও মিসাইল কেনা হয়েছে। যা শিগগিরই সেনাবাহিনীতে যোগ করা হবে।

তিনি জানান, আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে অনেরলিকন গান সিস্টেম সেনাবাহিনীতে সংযোজিত হয়েছে। অত্যাধুনিক রাডার, সিমুলেটর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক আধুনিক প্রযুক্তির অস্ত্র কেনার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

কোর অব ইঞ্জিনিয়ার্সের আধুনিকায়নের কার্যক্রম চলছে বলেও জানান জেনারেল আজিজ আহমদ।

সেনাপ্রধান বলেন, আগামীতে প্রত্যেকটি সেনানিবাসে হাব স্টেশনসহ ভিএসএটি টার্মিনাল বসানো হবে, যার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের সাথে সংযুক্ত হয়ে আধুনিক তথ্য প্রবাহে ঢুকে পড়বে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।