অনুমোদনের অপেক্ষায় রাশিয়ার আরেকটি করোনা ভ্যাকসিন

11
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
বিশ্বের প্রথম অনুমোদন পাওয়া করোনার ভ্যাকসিন স্পুটনিক ফাইভের পর এবার আরেকটি ভ্যাকসিনের অনুমোদনের অপেক্ষায় রাশিয়া। চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যেই ভেক্টর স্টেট ভাইরোলোজি অ্যান্ড বায়োটেকনোলজি সেন্টারের গবেষকদের তৈরি ভ্যাকসিনটি অনুমোদন পেলেই বিশ্বব্যাপী সরবরাহ শুরু করবে মস্কো। আর তা হলে করোনা মোকাবিলায় দৌড়ে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবে দেশটি।

ভ্যাকসিন সরবরাহ শুরু হলেও প্রাথমিক অবস্থায় কারা তা পাবেন, আর কারা বাদ যাবেন, এ নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকে চলছে আলোচনা। ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, যুক্তরাজ্যের ৬ কোটি ৭০ লাখ মানুষের মধ্যে ভ্যাকসিন দেয়া হবে মাত্র ৩ কোটি মানুষকে। এ তালিকা থেকে বাদ যাবে ১৮ বছরের কম বয়সীরা। প্রাথমিক অবস্থায় পঞ্চাশোর্ধ্ব নাগরিক, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যসেবী এবং শারীরিকভাবে দুর্বল ব্যক্তিদের ভ্যাকসিনেশনের আওতায় আনা হবে বলেও জানিয়েছেন ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পেতে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি আর ইউনিভার্সিটি অব কুইন্সল্যান্ডের সঙ্গে চুক্তি রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। শেষ ধাপের ট্রায়াল শেষে অনুমোদন পেলেই শুরু হবে সরবরাহ। তা নিতে ২০২১ সালের বাজেটে দেশটির ২০ হাজার কোটি ডলার বরাদ্দ করার পর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কোনো প্রতিষ্ঠানের তৈরি ভ্যাকসিনে ভরসা করে এতো বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ করা উচিত হবে না অস্ট্রেলিয়ার সরকারের। ইতিহাসে সবচেয়ে দ্রুত যে রোগের ভ্যাকসিন তৈরি হয়েছিল, মাম্পস, ‌১৯৬০ সালে তা উদ্ভাবনেও সময় লেগেছিল ৪ বছর।