ফের সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ভারতে, মাথায় গভীর ক্ষত নিয়ে হাসপাতালে তরুণী

12
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
উত্তরপ্রদেশের হাথরসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণে দলিত সম্প্রদায়ের তরুণীর মৃত্যুতে ক্ষোভের মধ্যে এবার হরিয়ানা রাজ্যের গুরুগ্রামে চার ব্যক্তির হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ২৫ বছর বয়সী এক তরুণী। পুলিশ বলছে, শুধু ধর্ষণ নয় ওই চার ব্যক্তির হাতে নির্মম নির্যাতনে মাথায় গভীর ক্ষত নিয়ে তরুণী এখন হাসপাতালে ভর্তি।

ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভির অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী পুলিশ আরও জানিয়েছে, অভিযুক্ত চার ধর্ষকের বয়স বিশ থেকে পঁচিশ বছরের মধ্যে। অপরাধ সংগঠনের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তাদের গ্রেফতরা করা হয়েছে।

সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসিপি) করণ গোয়েল ফোনে এনডিটিভিকে বলেছেন, গুরুগ্রামের ডিএলএফ ফেজ-২ তে তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়। অভিযুক্ত চারজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে তিনজন ডেলিভারিম্যান।

তিনি আরও বলেন, গুরুগ্রামের সিকান্দারপুর মেট্রো স্টেশনে শনিবার রাতে ওই তরুণীর সঙ্গে দেখা হয় অভিযুক্ত এক তরুণের। এরপর সে তাকে একটি রিয়ালটর অফিসে নিয়ে। সেখানেই তরুণী ধর্ষণের শিকার হন।

রিয়ালটর অফিসে আগে থেকেই হাজির ছিলেন অপর তিন অভিযুক্ত। তাদের মধ্যে একজন ওই রিয়ালটর অফিসের কর্মী। তার কাছে ভবনটির চাবি ছিল বলে জানিয়েছেন এসিপি করণ গোয়েল।

তরুণী যখন বাঁধা দেয় তখন অভিযুক্তরা তাকে প্রচণ্ডরকম মারধর করে। তার মাথা ভবনের দেয়ালে রেখে ধাক্কা দেয়া হয়। এসিপি বলেন, ‘মাথায় গভীর ক্ষত হওয়ায় তরুণীকে গুরুগ্রামের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অপরাধ শেষে ঘটনাস্থলে ত্যাগ করে অভিযুক্ত চার তরুণ। এরপর তরুণীর চিৎকার শুনে ভবনটির এক নিরাপত্তা প্রহরী খবরটি পুলিশকে জানায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তরুণীকে উদ্ধারের পর হাসপাতালে ভর্তি করে।

আরেক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, অপরাধের খবর জানার কয়েক ঘণ্টা পর পুলিশ ওই চার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। সংশ্লিষ্ট আইনের ধারা অনুযায়ী তাদের নামে মামলাও দায়ের করা হয়েছে।