যে কারনে, শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরে নারাজ ট্রাম্প

২৪ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ০১:০২:২৮
12
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
নভেম্বরের নির্বাচনে হারলে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রতিশ্রুতি দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ডাকযোগে দেওয়া ভোট নিয়ে আবারও সংশয় প্রকাশ করে হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প জানান, নির্বাচনী ফলাফল সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্ত গড়াবে বলেই তাঁর বিশ্বাস।

তবে নভেল করোনাভাইরাসের কারণে বেশির ভাগ অঙ্গরাজ্য ডাকযোগে ভোটের প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছে।

শুরু থেকেই ডাকযোগে ভোটগ্রহণের বিরোধিতা করে আসছেন ট্রাম্প। সংক্ষেপে একে ‘ব্যালট’ নামে অভিহিত করছেন তিনি। দেশে করোনার প্রভাব নেই এমনটি প্রমাণ করতে তিনি ডাকযোগে বা ব্যালটে ভোটের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছেন।

স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকরা ট্রাম্পের কাছে জানতে চান, তিনি হারলে বা ড্র করলে ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেনের কাছে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন কিনা?

জবাবে ট্রাম্প বলেন, ‘ব্যালট নিয়ে আমি দৃঢ়ভাবে অভিযোগ জানিয়ে যাচ্ছি, এগুলো বিপর্যয়কর। তারপরও দেখা যাক কী ঘটে। আপনারা সবই জানবেন।’

সাংবাদিকরা পাল্টা বলেন, ‘মানুষ তো দাঙ্গা-হাঙ্গামা করছে।’

ট্রাম্প জবাব দেন, ‘ব্যালট বাদ দিলে শান্তিপূর্ণ এবং খুবই শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হবে। এ ছাড়া ক্ষমতা হস্তান্তর (করা) হবে না। খোলাখুলি বললে, আমি চালিয়ে যাব।’

২০১৬ সালেও ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের বিপরীতে হেরে গেলে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা ছাড়বেন না বলে জানিয়েছিলেন ট্রাম্প। হিলারি একে ‘গণতন্ত্রের ওপর আঘাত’ বলে আখ্যায়িত করেন। অবশেষে যদিও ফলাফলে ট্রাম্পকেই নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।

এদিকে, হিলারি ক্লিনটন গত মাসে মার্কিনিদের সতর্ক করে দিয়ে বলেন, ‘সহজে ট্রাম্প ক্ষমতা ছেড়ে না দিয়ে আমাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করবেন। সব ধরনের আইন ব্যবহারের চেষ্টা করবেন। আমি জনগণকে ভীত করতে চাই না, কিন্তু আপনাদের প্রস্তুত থাকতে বলব। এটা বিশ্বাস করার জন্য আমার কাছে যথেষ্ট কারণ রয়েছে। ক্ষমতা আঁকড়ে রাখতে তিনি (ট্রাম্প) তাঁর অন্তরঙ্গ বন্ধু অ্যাটর্নি জেনারেল উইলিয়াম বারকে প্রস্তুত রেখেছেন।’

এদিকে গতকাল বুধবার নির্বাচনে সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ নিয়ে জানতে চাওয়া হলে ট্রাম্প বলেন, এবারের নির্বাচনের ফলাফলও সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে।