করোনা সংক্রমনে বিজেপি সরকার আবারও তাবলীগকে দায়ি করলো

11
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
বিজেপি সরকার আবারও করোনা সংক্রমনের জন্য তাবলীগ জামাতকে দায়ি করলো। তাদের এই মন্তব্যের পিছে যুক্তি না থাকলেও তাবলীগ নিয়ে তাদের দূরভিসন্ধী অনেকেই টের পাচ্ছে।

কোনও রাখঢাক না-করেই সংসদে এক লিখিত জবাবে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি জানান, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করেই তাবলীগ জামাত সমাবেশ করেছিল। পারস্পরিক দূরত্ব মানা হয়নি। 

শিবসেনা সাংসদ অনিল দেশাই মঙ্গলবার  রাজ্যসভায় প্রশ্ন করেন, রাজধানী ও অন্য রাজ্যগুলিতে করোনা ছড়িয়ে পড়ার পিছনে কী তাবলিগ ওই জমায়েত দায়ী?

দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ার জন্য ওই জমায়েতকে ‘অন্যতম বড়’ কারণ উল্লেখ করে লিখিত জবাবে কিষাণ রেড্ডি বলেন, ‘করোনা সংক্রমণের আবহে প্রশাসন বিধিনিষেধ জারি করেছিল। কিন্তু ওই বিধি লঙ্ঘন করে একটি ছোট জায়গায় দীর্ঘ সময় ধরে অনেকে ভিড় করেছিলেন। সামাজিক দূরত্ব মানা হয়নি, ব্যবহার করা হয়নি মাস্ক, স্যানিটাইজার। সেখানেই অনেকে সংক্রমিত হয়ে পড়েছিলেন।’

শিবসেনা সাংসদ জানতে চেয়েছিলেন, ওই জমায়েতে কতজন যোগ দিয়েছিলেন এবং কতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জানিয়েছেন, গত ২৯ মার্চ নিজামুদ্দিন মারকাজ থেকে দিল্লি পুলিশ ২৩৬১ জনকে বের করে দিয়েছিল।

জি কিষাণ রেড্ডি বলেন, ‘ওই জমায়েতে অংশ নেওয়া ২৩৩ জনকে গ্রেফতার করেছিল দিল্লি পুলিশ। জামাত প্রধান মৌলানা মহম্মদ সাদের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।’

ওই জমায়েতে যোগ দিয়েছিলেন ৩৬টি দেশ থেকে আসা ৯৫৬ জন বিদেশি নাগরিক। তাদের বিরুদ্ধে ৫৯টি চার্জশিট জমা দিয়েছে দিল্লি পুলিশ।