চীনা সেনারা লাদাখ সীমান্তে লাউডস্পিকারে পাঞ্জাবি গান বাজাচ্ছে

১৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ১১:৩৯:২৩
20
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
ভারতীয় সেনাদের মনোযোগ বিচ্ছিন্ন করতে চীনা সেনারা সীমান্তে পাঞ্জাবী গান বাজানোর পাশাপাশি হিন্দিতে বিভিন্ন উস্কানিমূলক প্রচারণা চালাচ্ছে বলে দাবি করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

সামরিক বাহিনীর এক কর্মকর্তা বলেন, চীনের এই মনস্তাত্ত্বিক অভিযানে ভারতীয় সেনাদের টলানো যাবে না। ভারতীয় সেনারা বরং এই গান উপভোগ করছে বলেও জানান তিনি।

ফিংগার ৪ এলাকায় লাউডস্পিকার লাগিয়ে পাঞ্জাবি গান বাজায় চীনা সেনারা। যদিও পুরো বিষয়টিকে চীনের সেনাবাহিনীর নতুন কোনও স্ট্র্যাটেজি বলেই মনে করা হচ্ছে। চীন ভারতের সঙ্গে সাইকোলজিক্যাল ওয়ারফেয়ারের পথে যেতে চলেছে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

জানা গেছে, আঞ্চলিক বিবাদ নিয়ে গত ২০ দিনে ভারত-চীন সেনার তিনবার গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে। ইতিমধ্যেই প্যাংগং লেকের দক্ষিণ পাড়ে রেজাং লা ও রেচিন লা থেকে পিছু হটতে বাধ্য হয় চীন। আর এরপরই চীনের এমন পদক্ষেপ।

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংও চীনের উস্কানিমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন। রাজ্যসভায় বক্তব্য দেয়ার সময়ে তিনি বলেন, লাদাখে টহল দেয়া থেকে কোনো শক্তিই ভারতকে দমিয়ে রাখতে পারবে না।

তিনি বলেন, ‘সীমান্তে টহলের কারণেই মূলত এই মুখোমুখি পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। যদি এখন কেউ এই টহলের ধরণ নিয়ে প্রশ্ন তোলে তাহলে বলবো, এটি আমাদের ঐতিহ্যগত অধিকার। বিশ্বের কোনো শক্তিই আমাদের দমাতে পারবে না। আর এ জন্যই আমাদের সেনারা তাদের জীবন উৎসর্গ করেছে।’

ভারতীয় সেনাকে বিভ্রান্ত করতে বা তাদের আক্রমণ করতে উৎসাহী করে তুলতেই চীন পরিকল্পিতভাবে এমনটা করেছে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকমাস ধরেই ভারত-চীন সীমান্ত সংঘাত চলছে। সংঘাতের জেরে উত্তেজনার পারদ ক্রমশ তুঙ্গে। এই নিয়ে বারংবার দু’দেশ আলোচনায় বসলেও কোনও সুরাহা মেলেনি।