কলঙ্কজনক মুহূর্ত: চারজন মানুষ ইতিহাস রচনা করছে!(ভিডিও)

১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ০৯:১৭:৪২
16
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
সব সমালোচনাকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে ইসরাইলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্বাভাবিকরণে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি সই করেছে বাহরাইন এবং সংযুক্ত আরব-আমিরাত। এর মধ্যে দিয়ে ইহুদি রাষ্ট্রের সঙ্গে দুই আরব দেশের সম্পর্ক অনন্য উচ্চায় পৌঁছাল। ঐতিহাসিক এ চুক্তিকে ‘মধ্যপ্রাচ্যের নতুন ভোর’ আখ্যা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সময় দুপুরে হোয়াইট হাউসে ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপস্থিতিতে তিন দেশের এ চুক্তি সই অনুষ্ঠান হয়। সেখানে অতিথিদের উদ্দেশে ট্রাম্প এ চুক্তির প্রশংসায় করে বলেন, ‘কয়েক দশকের বিভক্তি এবং সংঘাতের পর আমরা নতুন মধ্যপ্রাচ্যের যাত্রা শুরু করলাম। আমরা ইতিহাস বদলে দিতে এখানে সমবেত হয়েছি।

ওই অনুষ্ঠানে ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু, আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন জায়েদ আল-নাহিয়ান ও বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল লতিফ আল জায়ানি নিজ নিজ দেশের পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

এ চুক্তি সইয়ের মধ্য দিয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ আরব দেশ হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন ইসরাইলের সঙ্গে পুরোপুরি স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপনে অঙ্গীকারাবদ্ধ হলো। এর আগে ১৯৭৯ সালে মিশর এবং ১৯৯৪ সালে জর্ডান ইসরাইলের সঙ্গে শান্তিচুক্তি সই করেছিল।

ফিলিস্তিনিদের বিরোধিতা ও তীব্র প্রতিবাদের মুখেও মাত্র কয়েকদিনের ব্যবধানে ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনে দুটি আরব দেশের চুক্তি সই ট্রাম্পের অভাবনীয় কূটনৈতিক সাফল্য হিসেবেই দেখছে মার্কিন প্রশাসন।

ইসরাইলের সঙ্গে দুই আরব রাষ্ট্র সম্পর্ক স্বাভাবিক করায় কড়া নিন্দা জানিয়েছে ইরান ও ফিলিস্তিন।