ব্রণ দূর করতে গাজর

১৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ০৪:৪০:৩৫
10
Print Friendly, PDF & Email

হেলথ ডেস্কঃ

টিন এজ বয়সে ব্রণের সমস্যায় ভোগেনি এমন মানুষ বিরল। সেই সাথে এই সমস্যা চরম বিরক্তিকরও বটে। দূর করতে কত কী ই না করা হয়। তবে একথা আমরা সকলেই জানি যে প্রকৃতিতেই সকল সমস্যার সমাধান দেয়া থাকে। তেমনইভাবেই ব্রণ দূর করতে গাজরের ব্যবহারও আপনার জানা উচিত। অন্তত স্বস্তি নিয়ে বাইরে বেরোতে চাইলে তো বটেই।

অনেকেরই ব্রণের সমস্যা আছে। বিশেষ করে কিশোর-তরুণ বয়সীরা এ সমস্যায় বেশি ভোগেন। অগোছালো জীবনযাত্রা, দূষণ, মানসিক চাপ, ঘুম না হওয়া, কাজের চাপ, সুষম খাদ্য গ্রহণে ঘাটতি- এই সবকিছু কারণে স্বাস্থ্যের পাশাপাশি ত্বক ও চুলে নানা সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়া ঘাম, ধুলোবালি, আর দূষণের কারণে ত্বক নিস্তেজ হয়ে যায়। তখন ত্বকে নানা দাগ, ব্রণ, স্পট ইত্যাদি দেখা দেয়। ত্বক যদি তৈলাক্ত হয় তাহলে এ সমস্যা আরও বাড়ে।

অনেকের হয়তো জানা নেই, গাজরের রস ব্রণ দূর করতে দারুণ কার্যকরী। এতে থাকা ভিটামিন এ ও সি ত্বকের জন্য খুব উপকারী। গাজরের রস ত্বককে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে রক্ষা করে, পাশাপাশি ব্রণ কমাতেও সহায়তা করে।

ত্বকে গাজরের রস ব্যবহার করবেন যেভাবে-

গাজরের রসঃ ব্রণ দূর করতে গাজরের রস সরাসরি মুখে লাগাতে পারেন। এজন্য ২ টেবিল চামচ গাজরের রস নিন। প্রথমে ক্লিনজার দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে শুকিয়ে নিন। এরপর গাজরের রসে কটন প্যাডে ভালোভাবে ডুবিয়ে এটি গোটা মুখে লাগান। পুরোপুরি না শুকানো পর্যন্ত মুখে রেখে দিন। তারপর ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। কাঙ্ক্ষিত ফলের জন্য প্রতিদিন এটি ব্যবহার করতে পারেন।

গাজরের রস ও সি সল্টঃ অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য থাকায় গাজরের রস ও সি সল্ট মিশ্রণটি ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে । সেই সঙ্গে ত্বক পরিষ্কার রাখে। এছাড়াও এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সহায়তা করে। ব্রণ দূর করতেও সহায়তা করে। এ মিশ্রণটি তৈরি করতে ১ টেবিল চামচ গাজরের রস, ১ চা চামচ সি সল্ট মিশিয়ে নিন। এরপর কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত জায়গায় মিশ্রণটি লাগান। কিছুক্ষণ বৃত্তাকার গতিতে আলতো করে মুখ ম্যাসাজ করুন। পুরোপুরি শুকিয়ে না যাওয়া পর্যন্ত এটি আপনার মুখে রেখে দিন। এরপর হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

গাজরের জুস ও অলিভ অয়েলঃ গাজরের রস ও অলিভ অয়েলে এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য থাকায় এটি ত্বককে সতেজ করে। এছাড়াও, এই তেল ত্বককে ময়েশ্চরাইজ করে এবং পুষ্টি যোগায়। মিশ্রণটি তৈরি করতে ২ টেবিল চামচ গাজরের রস ও ১ চা চামচ অলিভ অয়েল ভালো ভাবে শেশান। এবার একটি কটন প্যাড ব্যবহার করে আক্রান্ত স্থানে মিশ্রণটি প্রয়োগ করুন। ১৫ মিনিট রেখে তারপর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। এই প্রতিকারটি সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন।

গাজরের জুস ও মুলতানি মাটিঃ মুখে ব্রণ হওয়ার অন্যতম কারণ হলো তৈলাক্ত ত্বক। অতিরিক্ত তেল ত্বকের ছিদ্রকে আটকে দেয়, যার ফলে সমস্যা হয়। মুলতানি মাটি ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী। এটি কেবলমাত্র ত্বক থেকে তেল এবং ময়লা শোষণ করে না, পাশাপাশি ত্বকের তৈলাক্ততা নিয়ন্ত্রণ করে নানা সমস্যা, যেমন – ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, দাগ এবং ব্রণ কমাতে সহায়তা করে। এই মিশ্রণটি তৈরি করতে গাজর থেকে রস বের করে তাতে মুলতানি মাটির গুঁড়া দিয়ে ভালোভাবে মেশান। এবার এই পেস্টটি মুখে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর হালকা গরম পানি দিয়ে ভালোভাবে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ভালো ফল পেতে সপ্তাহে একদিন এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন।