সরকারবিরোধী পদযাত্রা থেকে বেলারুশের বিরোধীদলীয় নেত্রীকে অপহরণ

৮ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ১০:২০:৪২
13
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
বেলারুশ বিরোধীদলীয় নেত্রী মারিয়া কোলেসনিকোভা অপহরণের শিকার হয়েছেন। মুখোশপরা কয়েকজন ব্যক্তি তাকে রাজধানী মিনস্ক থেকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে। সরকারবিরোধী বিশাল গণ-মিছিলের পর এই ঘটনা ঘটে। দেশটির মিডিয়া আউটলেট টুটু ডট বাই’র উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) মারিয়াকে কোলেসনিকোভাকে অপহরণ করা হয়। এর আগে বেলারুশের আরও দুই নারী রাজনীতিবিদকে গ্রেফতার করা হয়েছে

খবরে আরও বলা হয়, গত আগস্টে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে বিতর্কিত উল্লেখ করে প্রতিবাদে নামে সরকার বিরোধীরা। এরই ধারাবাহিকতায় রোববার মিনস্কে গণর‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়। সেখান থেকে ৬৩৩ বিদ্রোহী গ্রেফতার করে দেশটির সরকারি প্রশাসন। যদিও মারিয়াকে গ্রেপ্তারের কথা অস্বীকার করেনি দেশটির পুলিশ।

দেশটির দীর্ঘ সময়ের নেতা আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে বিক্ষোভে যোগ দেওয়া তিন নারী রাজনীতিবিদদের মধ্যে শেষজন মারিয়া কোলেসনিকোভা। তিনি লুকাশেঙ্কোর কঠোর সমালোচক। নির্বাচন-পরবর্তী রাজনৈতিক সংকটে তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

৯ আগস্ট নির্বাচনে অভাবনীয় ব্যবধানে জিতে ফের ক্ষমতায় আসেন লুকাশেঙ্কো। তবে তার বিরুদ্ধে ভোটচুরি ও অনিয়মের অভিযোগ এনে রাস্তায় নেমে আসে বেলারুশের মানুষ। একের পর এক বিক্ষোভে ভিত নড়ে উঠলেও ক্ষমতায় অটল লুকাশেঙ্কো।

প্রেসিডেন্ট লুকাশেঙ্কোর বিরুদ্ধে ভোটচুরির অভিযোগ এবং নতুন নির্বাচনের দাবিতে ৯ আগস্ট থেকে বিক্ষোভে নামে বেলারুশের জনগণ। এতে সোভিয়েত সময়ের পর সবচেয়ে বড় বিক্ষোভে পড়েছে দেশটি।

১৯৯২ সালে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে নতুন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে বেলারুশ। এর মাত্র দুই বছর পর দেশটির ক্ষমতায় আসেন লুকাশেঙ্কো। এর পর থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ২৬ বছর ধরে দেশের ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে রেখেছেন তিনি। তাকে বলা হয় ইউরোপের শেষ স্বৈরাচার।