বার্মিংহ্যামে সিরিজ ছুরি হামলায় নিহত ১, আহত ৭!

৬ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ০৫:১৮:১৭
9
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
ব্রিটেনের বার্মিংহ্যাম সিটি সেন্টারে সিরিজ ছুরি হামলায় জড়িত সন্দেহভাজন একজনকে খুঁজছে পুলিশ। ওই হামলায় একজন নিহত হয়েছেন। আহত এক নারী এবং এক পুরুষের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত বাকি ৫ জন শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

চিফ সুপারিনটেনডেন্ট স্টেভ গ্রাহাম বলেন, ওই ঘটনার সঙ্গে সন্ত্রাসী হামলার কোনো সম্পর্ক নেই। ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসের পুলিশ একটি হত্যা মামলার তদন্ত শুরু করেছে। বিবৃতিতে পুলিশ জানায়, গোয়েন্দারা কয়েকটি প্রশ্ন সামনে রেখে তদন্ত করছে। নিয়মিত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি সশস্ত্র গার্ড মোতায়েন করা হয়েছে।

শহরের বিভিন্ন রাস্তার সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হচ্ছে। এলাকাবাসীর প্রতি আহ্বান আপনারা যদি কিছু দেখে থাকেন, মোবাইলে যদি কিছু ধারণ করে থাকেন তা যতদ্রুত সম্ভব নিরাপত্তা বাহিনীকে তথ্য দিন। বলা হয় পুলিশের বিবৃতিতে। একে বড় দুর্ঘটনার বলে আখ্যা দিয়েছে স্থানীয় পুলিশ।

ওয়েস্ট মিডল্যান্ডস পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার স্থানীয় সময় রাত সাড়ে ১২টায় ছুরিকাঘাতের একটি ঘটনা ঘটেছে বলে তাদের জানানো হয়। তারপরে আরো কয়েকদফা ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে বলেও উল্লেখ করা হয়।

ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসের মেয়র অ্যান্ডি স্রিট জানান, হারস্ট স্ট্রিট এলাকায় ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে। হামলার ধরন বা কারণ সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, হারস্ট স্ট্রিটে সমকামীদের একটি গ্রাম রয়েছে। সেখানে চীনা কোয়ার্টারও রয়েছে। ক্লাব এবং বার থাকায় রাতভর এলাকাটি ব্যস্ত থাকে।

ধারণা করা হচ্ছে, গোষ্ঠীগত দ্বন্দ্ব থেকে ছুরি হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বড় দুর্ঘটনা আখ্যা দিয়েছে পুলিশ।

বর্তমান পরিস্থিতি সাধারণ মানুষের জন্য ভয়াবহ ঝুঁকিপূর্ণ আখ্যা দিয়েছে সতর্ক করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো একসঙ্গ কাজ করছে।

আর্কাডিয়ান সেন্টারে বিক্রয়কর্মীর কাজ করেন প্রত্যক্ষদর্শী কারা কুরান। বলেন, লকডাউন শিথিলের পর ধীরে ধীরে সেখানে কর্মচাঞ্চল্য ফিরছিল। ঘটনার রাতে সেখানে অন্য দিনের তুলনায় অনেক মানুষের উপস্থিতি ছিল।

তিনি বলেন, সাড়ে ১২ টায় ডিউটি শেষ করে সহকর্মীদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছিলাম। এমন সময় চিৎকার চেঁচামেচি শুনতে পাই। অনেক হইহুল্লোড় হচ্ছিল তখন। প্রথমে কয়েকজন মানুষকে লড়তে দেখি। তা দেখার জন্য ক্লাব থেকে অনেকে বেরিয়ে আসেন। তাদের মধ্যে নারী, পুরুষ, যুবক বৃদ্ধ সবাই ছিল।

ক্লাবে কাজ করি। এমন অসংখ্য ঘটনা দেখেছি। কিন্তু সবশেষ যা ঘটল তা সম্পূর্ণ আলাদা। দাঙ্গাকারীদের শারীরিক ভাষা, আচরণ ভিন্ন ছিল। তিন ঘণ্টার মতো মারামরি স্থায়ী হয়। সেখানে ছুরি হামলা হয়েছে। প্রাইভেটকার দুর্ঘটনা ঘটেছে কয়েকটি। সত্যি আমি আতঙ্কিত। বলেন কুরান।

যা ঘটেছে এমন ঘটনা প্রত্যক্ষ করা ভয়ানক। ভীত, সন্ত্রস্ত হয়ে একটি রাত পার করতে হয়েছে। আমি এখনো আতঙ্কিত। বলেন কারা কুরান।

মেয়র অ্যান্ডি স্ট্রিট জানান, তাকে প্রধান কনস্টেবল জানিয়েছেন, হারস্ট স্ট্রিট এলাকায় দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষের কারণ এখনো জানা যায়নি। এলাকাবাসীতে শান্ত থেকে স্বাভাবিক কাজকর্মে ফেরার আহ্বান জানানো হয়েছে।

ওয়েস্ট মিডল্যান্ডসের পুলিশ জানিয়েছে, বেশ কয়েক জন আহত হয়েছে। তবে সংখ্যায় কতজন তা এখনো চিহ্নিত করা যায়নি। কার অবস্থা কেমন তাও জানা যায়নি।

পুলিশ জানিয়েছে, জরুরি সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো একসঙ্গে কাজ করছে। আহতদের যাদের চিকিৎসার প্রয়োজন তাদের জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করছে। বিবৃতিতে বলা হয়, ঠিক কি ঘটেছে তা নির্ধারণে কাজ চলছে। বিস্তারিত জানাতে সময় লাগবে। এ মুহূর্তে অনুমান নির্ভর মন্তব্য ঠিক হবে না বলেও উল্লেখ করা হয়।

জরুরি সেবাদানকারীরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করছে। দুর্ঘটনাস্থল ঘিরে রাখা হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে আশপাশের কয়েকটি রাস্তা। পরে নিরাপত্তা বাহিনী জানিয়েছে, সেখানে গুলি চালানোর কোনো ঘটনা ঘটেনি। গুলি চালানোর কয়েকটি অভিযোগ পাওয়া গেলেও এখনো পর্যন্ত তার সত্যতা পাওয়া যায়নি। বলেন এক পুলিশ কর্মকর্তা।

আশপাশের লোকজনকে আরো সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব। বলেন, ভয়াবহ এ ঘটনা সম্পর্কে আমরা সচেতন রয়েছি। ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য সমবেদনা। ঘটনার বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি। স্থানীয়দের সতর্ক থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। সন্ত্রাসী হামলা কী না? এমন প্রশ্নের উত্তরে রাব বলেন, এ বিষয়ে কোনো তথ্য আমার কাছে নেই।