অস্ত্রোপচারের জন্য অপারেশন থিয়েটারে সংকটাপন্ন ইউএনও ওয়াহিদা খানম

৩ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ১১:১১:১৯
12
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমকে মাথায় অস্ত্রোপচারের জন্য অপারেশন থিয়েটারে ঢোকানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) নয়টার পর তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেয়া হয়।
গঠিত সাত সদস্যের মেডিকেল বোর্ড তার চিকিৎসার বিষয়টি তদারকি করছেন।

মাথার বাম পাশে গুরুতর ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় অস্ত্রোপচারের কথা জানান রাজধানীর নিউরোসায়েন্স হাসপাতালে চিকিৎসকরা। তবে তার সেন্স আগের তুলনায় কিছুটা ভালো।
এর আগে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে উন্নত চিকিৎসা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিকে, বিকেল ৪টার দিকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসাইন্স হাসপাতালের চিকিৎসক প্রফেসর জাহিদ বলেছিলেন, ‘উনি সংকটাপন্ন অবস্থাতেই আছেন, উনার ব্লাড প্রেশার, পালস যদি উন্নতি না করে এবং জ্ঞানের মাত্রা যদি আরো ডিটোরেট করে, তাহলে উনি যথেষ্ঠ বিপজ্জনক অবস্থায় আছেন, যেকোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটতেও পারে। তবে আমরা আশা করছি উন্নতি হয়ে যাবে, বাকিটা আল্লাহ ভরসা।’

বিকেলে ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালে চিকিৎসাধীন ওয়াহিদা খানমকে দেখতে যান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। এ সময় তিনি সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ওয়াহিদা খানমের ওপর হামলাকারী দুজন তরুণ। তাদের গড়ন হালকা স্বাস্থ্যের। প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

হামলাকারীদের চিহ্নিত করার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এখন পর্যন্ত কারণ জানা যায়নি। তদন্ত চলছে, কারণ বের করার চেষ্টা চলছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে হালকা স্বাস্থ্যের দুজন তরুণ। তবে তাদের চেহারা পুরো বোঝা যাচ্ছে না। হাতুড়ি জাতীয় কিছু দিয়ে আঘাত করেছে। হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে। পুলিশ সুপার জানিয়েছেন তিনি আশাবাদী, খুব দ্রুত গ্রেপ্তার করতে পারবেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আহত ইউএনওকে সবচেয়ে ভালো চিকিৎসা নিশ্চিত করা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারও নির্দেশ আছে।

এর আগে দুপুর ২টার দিকে ওয়াহিদা খানমকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকার আগারগাঁওয়ের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে আনা হয়।