যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় ইসরাইলের বিমান হামলায় ইরান সমর্থিত ১৬ যোদ্ধা নিহত

৩ই সেপ্টেম্বর, ২০২০ || ১১:০২:৩৫
8
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক:
যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে এ সপ্তাহে তৃতীয় বারের মতো বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরাইল। ঘটনায় ইরান সমর্থিত ১৬ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) দেশটিতে যুদ্ধ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা সিরিয়ান অবর্জাবেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের উদ্ধৃতি দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে আরব নিউজ।

নিহতদের সবাই ইরান সমর্থিত ইরাকের আধাসামরিক বাহিনীর সদস্য। সিরিয়ার মায়াদিন শহরে ৭ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন মানবাধিকার সংগঠনটির প্রধান রামি আবদুর রহমান। অন্য ৯ জন আবুল কালাম সিটিতে নিহত হন বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

ঘটনার আপেক্ষিকতায় মনে হচ্ছে, এ হামলা ইসরাইলই করেছে। আর যদি তাই হয় তবে গত ২৪ ঘণ্টায় দ্বিতীয়বার এবং এ সপ্তাহ শেষ না হতেই তৃতীয়বার হামলা চালালো ইসরাইল, বলেন আবদুর রহমান।

বুধবার (০২ সেপ্টেম্বর) সিরিয়ার সানা নিউজ এজেন্সি জানায়, দেশটির টি-৪ বিমান ঘাটিতে বিরতিহীনভাবে কয়েক ঘণ্টা যাবত মিসাইল হামলা চালায় ইসরাইল। তবে ওইসব হামলা সফলভাবে প্রতিহত করা হয়েছে। তবে ওই হামলায় দেশটির বিমান বাহিনীর বিভিন্ন স্থাপনা ও যুদ্ধাস্ত্রের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে স্বীকার করলেও সানা দাবি করে, সিরিয়ার আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ইসরাইলকে মোকাবিলার জন্য যথেষ্ঠ।

আবদুর রহমান বলেন, ‘তবে বৃহস্পতিবারের যেসব স্থানে হামলা করা হয়েছে তাতে মনে হয়েছে লেবাননের হিজবুল্লাহ সমর্থিত যোদ্ধাদের অবস্থান এবং ইরান সমর্থিত ইরাকের আধাসামরিক বাহিনীকে লক্ষ বস্তুতে রূপান্তর করা হয়েছে।’

সিরিয়ান অবর্জাবেটি জানায়, সিরিয়ার ৩ জন সামরিক কর্মকর্তা ও ৭ জন বিদেশি যোদ্ধা নিহত হয়েছেন সোমবারের হামলায়।

২০১১ সালে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরুর পর থেকে ইসরাইল দেশটিতে কয়েকশ হামলা চালিয়েছে। যার মধ্যে লেবাননের হিজবুল্লাহ, ইরান সমর্থিত কয়েকটি সশস্ত্র গোষ্ঠী এবং দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ ও তার সেনাবাহিনীই ছিল লক্ষ্যবস্তু। এসব হামলার বিষয়ে খুব কমই ইসরাইল স্বীকার করে।
তবে বৃহস্পতিবারের (৩ সেপ্টেম্বর) হামলার বিষয়ে ইসরাইল বলছে, ‘তারা সিরিয়ার সামরিক লক্ষ্যবস্তুতে হামলার জন্য যুদ্ধ বিমান এবং হেলিকপ্টার ব্যবহার করেছে।’

এর আগে ইসরাইলের হামলায় একজন হিজবুল্লাহ যোদ্ধা নিহত হওয়ার পর দলটির প্রধান হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, ‘হিজবুল্লাহর প্রতিটি যোদ্ধার মৃত্যুর বদলা হিসেবে ইসরাইলের একজন সেনাকে হত্যা করা হবে।‘ তবে হিজবুল্লাহ কোনো কিছুতে তাড়াহুড়ো করবে না। বলেন হাসান নাসরুল্লাহ।