ফ্রান্সে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, লকডাউনের চিন্তা

২৯ই Auguই, ২০২০ || ১০:২৩:৩৭
7
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
ফ্রান্সে আবারো বেড়েছে করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এপ্রিলের শুরু থেকে এ সংখ্যাটি ধীরে ধীরে কমতে শুরু করলেও চলতি মাসে তা আবারো বাড়তে থাকে। এর মধ্যেই গতকাল শুক্রবার দেশটিতে নতুন করে আরো সাত হাজার ৩৭৯ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়, যা গত মার্চের পর সর্বোচ্চ।

এর আগে ফ্রান্সে গত ৩১ মার্চ এক দিনের হিসেবে সাত হাজার ৫৭৮ জনের করোনা শনাক্ত করা হয়েছিল। করোনা মহামারির মধ্যে সেটিই ছিলে ফ্রান্সে সর্বোচ্চ শনাক্ত রোগীর সংখ্যা। সংবাদমাধ্যম বিবিসি আজ শনিবার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে।

ফ্রান্সের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়েছে, গত বুধবার করোনা শনাক্ত করা হয়েছিল পাঁচ হাজার ৪২৯ জনের, বৃহস্পতিবার শনাক্ত করা হয়ছিল ছয় হাজার ১১১ জনের। প্রতিদিনের মতো গতকাল শুক্রবারও তা বেড়েছে। আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে সংক্রমণ।

মন্ত্রণালয়টির পক্ষ থেকে আরো বলা হয়, করোনা সংক্রমণের সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও হাসপাতালে রোগীর চাপ ও মৃত্যুর সংখ্যা স্থিতিশীল রয়েছে, যেহেতু কম বয়সীরা এ রোগে আক্রান্ত হলেও ঝুঁকি কম।

এদিকে, দেশজুড়ে আবারো লকডাউনের কথা ভাবছে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ। তিনি বলেন, করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে দ্বিতীয় দফায় লকডাউনের ঘোষণা আসতে পারে। তবে তিনি এও জানিয়েছেন, অর্থনৈতিক অবস্থা সচল রাখতে পুনরায় বিধিনিষেধের বিষয়গুলো এড়াতে চাইছে তাঁর সরকার।

এর আগে গত মে মাসে আট সপ্তাহের দীর্ঘ লকডাউন শিথিল করতে শুরু করে ফ্রান্সের সরকার। তবে দেশটির রাজধানী প্যারিসসহ আরো কয়েকটি স্থানে বিভিন্ন বিধিনিষেধ বলবৎ ছিল। যেসব এলাকায় করোনা সংক্রমণ বেশি ছিল, সেসব এলাকায় পানশালা ও রেস্তোরাঁ বন্ধ রাখা হয়েছিল। এরই মধ্যে গতকাল শুক্রবার প্যারিসে বাইরে বের হলে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।