যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত পাপিয়া ও তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলায় বিচার শুরু

২৩ই Auguই, ২০২০ || ০২:৫২:০০
5
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপেন্ডন্ট, ঢাকা:
অস্ত্র আইনের মামলায় যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়া ও তাঁর স্বামী মফিজুর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। আর এ অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে আলোচিত মামলার বিচার শুরু হলো। আজ রোববার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আজ আসামিদের পক্ষে অভিযোগ গঠন থেকে অব্যাহতির আবেদন করা হলে বিচারক তা নাকচ করে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের নির্দেশ দেন।’

তাপস কুমার পাল আরো বলেন, ‘বিচারক আগামী ৩১ আগস্ট এবং ১, ২ ও ৩ সেপ্টেম্বর সাক্ষ‌্য গ্রহণের জন‌্য দিন ধার্য করেছেন।’

মামলার নথি থেকে জানা যায়, গত ২২ ফেব্রুয়ারি শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে নয়াদিল্লি যাওয়ার সময় বহির্গমন গেট থেকে পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমান (৩৮) ও ব্যক্তিগত সহকারী সাব্বির খন্দকারকে (২৯) গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাঁদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী হোটেল ওয়েস্টিন থেকে পাপিয়া ও তাঁর ব্যক্তিগত সহকারী শেখ তায়্যিবাকে (২২) গ্রেপ্তার করা হয়।

পরের দিন ২৩ ফেব্রুয়ারি দুপুরে পাপিয়ার ফার্মগেটের বাসা থেকে অস্ত্র, মদসহ বিপুল অবৈধ টাকা ও একটি বিদেশি পিস্তল, দুটি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ২০টি পিস্তলের গুলি, পাঁচ বোতল বিদেশি মদ ও নগদ ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পাপিয়া, তাঁর স্বামী ও দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে তিনটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলার পর তাঁদের বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নেওয়া হয়। তাঁরা এখন কারাগারে আটক রয়েছেন।