দেশের বাজারে কমছে সোনার দাম

১২ই Auguই, ২০২০ || ০৯:৫২:৪৯
11
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক রিপোর্ট:
টানা কয়েক দফা দাম বৃদ্ধির পর এবার দেশের বাজারে ভরিতে সাড়ে ৩ হাজার টাকা কমানো হল সোনার দাম। বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) থেকে নতুন দাম কার্যকর হবে। বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে ‘বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি’ (বাজুস)।

নতুন মূল্য অনুযায়ী, প্রতি ভরি ২২ ক্যারেট সোনার দাম ৭৩ হাজার ৭১৬ টাকা, ২১ ক্যারেটের দাম পড়বে ৭০ হাজার ৫৬৭ টাকা, এক ভরি ১৮ ক্যারেট সোনার দাম ৬১ হাজার ৮১৯ টাকা, প্রতি ভরি সনাতন সোনার নতুন দাম ৫১ হাজার ৪৯৭ টাকা।

তবে রূপার দাম অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। প্রতি ভরি রূপার দাম ৯৩৩ টাকা। আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বাজুস।

এর আগে গত ৬ আগস্ট ভরিতে সাড়ে ৪ হাজার টাকা বাড়িয়ে সোনার বাজার মূল্য নির্ধারণ করে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠনটি।

করোনা মহামারিতে দাম বৃদ্ধির রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়ে। চলতি মাসের শুরু থেকেই আন্তর্জাতিক বাজারে কিছুটা নমনীয়ভাব দেখা যায় মূল্যবান এই ধাতুটির। এরমধ্যে গতকাল (১১ আগস্ট) একদিনেই প্রতি আউন্স সোনার দাম কমেছে ১১৭ ডলার (প্রায় ১০ হাজার)। এদিন বাজারে প্রতি আউন্স সোনার হাত বদল শুরু হয় ২০২৭ ডলারে আর দিন শেষ হয় ১৯১০ ডলারে নামে। গোল্ড প্রাইসের হালনাগাদ পরিসংখ্যানে এই তথ্য পাওয়া যায়।

৭ আগস্ট নিউইয়র্ক সময় সকাল ৯টার আগ দিয়ে বাজারে পড়তে শুরু করে সোনার দাম। ওই সময় প্রতি আউন্স সোনা বিক্রি হয় ২ হাজার ৬১ ডলারে। ওই দিন কমতে কমতে ২ হাজার ১৮ ডলারে নামে প্রতি আউন্স সোনার দাম। এরপরে অবশ্য ঊর্ধমুখী প্রবণতা দেখিয়ে সেদিন বাজার শেষ হয় ২ হাজার ৩৫ ডলার। ৮ আগস্ট আন্তর্জাতিক বাজারে মোটামুটি এই দামের আশেপাশেই সোনা বিক্রি হয়। দিনও শেষ হয় ২ হাজার ৩৫ ডলারেই। ৯ আগস্ট এই দামে বাজারে এলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পড়তে থাকে মূল্যবান এই ধাতুর দাম। নেমে আসে ২ হাজার ২৫ ডলারে।

এরপর ওঠানামার মধ্য দিয়ে ২ হাজার ৩০ ডলারের সেদিনের লেনদেন শেষ হয় সোনার। ১০ আগস্ট বেশ খানিকটা চড়ে যায় বিনিয়োগের নিরাপদ মাধ্যম হিসেবে সমাদৃত সোনার দাম। সেদিন বেশিক্ষণ ২ হাজার ৪৬ ডলারে বিনিয়োগকারীদের হাত বদল হয় প্রতি আউন্স সোনা। এরপর পড়তে পড়তে দাম নেমে আসে ২ হাজার ২৯ ডলারে।