অনুশীলনের জন্য লন্ডন নয়, দেশেই ফিরছেন সাকিব

৯ই Auguই, ২০২০ || ০২:৫৮:১৬
13
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক রিপোর্ট:
শরীরে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের তকমা আাঁটা এক যুগ। খুব স্বাভাবিকভাবেই তিনি বাংলাদেশেরও সর্বকালের সেরা পারফরমার। ‘এভারবেস্ট অলরাউন্ডার।’

কিন্তু হায়! আইসিসির নিষেধাজ্ঞায় পড়ে এক বছর নিষিদ্ধ ‘বাংলাদেশের প্রাণ, সাকিব আল হাসান।’ ভক্ত-সমর্থকদের দীর্ঘঃশ্বাস আর বিনিদ্র রজনী কেটেছে কত! মনে হয় যেন, এই সেদিন। অথচ এরই মধ্যে কেটে গেল ১০টি মাস। আর মাত্র দুই মাস। এরপর শেষ হবে অপেক্ষার পালা। অক্টোবরের ২৯ তারিখ আইসিসি নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হচ্ছেন সাকিব আল হাসান।

এ কারণে সাকিব ভক্তরা নড়েচড়ে বসেছেন। সবার জানা, মাঠের দুর্দান্ত পারফরমার সাকিব ব্যক্তি জীবনেও শতভাগ পেশাদার মানসিকতার। তিনি নিজেও জানেন, এ বছরের শেষ দিকে না হয় আগামী বছরের শুরুতে করোনার প্রকোপ কমে গেলে আবার ক্রিকেট নিয়মিতই মাঠে গড়াবে। তাই নিজেকে শারীরিক ও মনসিকভাবে তৈরি করে রাখার চিন্তাটা আগেভাগেই করে রেখেছেন। সে কারণেই তার চিন্তা ছিল ইংল্যান্ডে গিয়ে ব্যক্তিগত উদ্যোগে ফিটনেস ট্রেনিং করার।

মাঝে শোনা গেল, সাকিব লন্ডনে গিয়ে কিছুদিন ফিজিক্যাল ট্রেনিং করবেন। বলার অপেক্ষা রাখে না, এখন সাকিব এখন যুক্তরাষ্ট্র অবস্থান করছেন। সঙ্গে স্ত্রী শিশির ও দুই কন্যা সন্তান।

গত মাসের মাঝামাঝি শোনা গেল, সাকিব মাঠে ফেরার আগে ফিটনেস ট্রেনিংটা ক্রিকেটের জন্মভুমি ইংল্যান্ডেই সেরে নিতে চান। এরপর দেশে ফিরে বিকেএসপিতে নিবিড় অনুশীলনে কাটাবেন।

শেষ খবর, সাকিব সম্ভবত আর লন্ডন যাচ্ছেন না। দেশে যাদের সঙ্গে তার সার্বক্ষণিক যোগাযোগ, সেই গুরু-মেন্টর প্রিয় সালাউদ্দীন স্যার (কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দীন) আর সেই শিক্ষা জীবনে বিকেএসপির শিক্ষক নাজমুল আবেদিন ফাহিমের (ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ ও কোচ) কাছে তেমনটাই জানিয়েছেন সাকিব।

তাদের দু’জনার কথায় একটি বার্তা পরিষ্কার, সাকিব আগামী সেপ্টেম্বর মাসেই নিবিঢ় অনুশীলনে মনোযোগ দেবেন এবং সেটা আর লন্ডনে নয়। দেশের মাটিতে।

শনিবার সাংবাদিকদের সাথে আলাপে নাজমুল আবেদিন ফাহিম জানালেন, সাকিবের সাথে আমার যে সর্বশেষ আলাপ হয়েছে, সেখানে লন্ডন যাওয়ার কথা শুনিনি। তার লন্ডন গিয়ে ফিটনেস ট্রেনিং বা স্কিল ট্রেনিং করার কথা সে বলেনি। তবে এটা বলেছে, সে দেশে এসে বিকেএসপতে ট্রেনিং করতে চায়। এবং খুব সম্ভবত সাকিব এই আগস্ট মাসের শেষ দিকেই আমেরিকা থেকে দেশে ফিরে আসছে।

প্রায় প্রতিদিন না হলেও এক-দুদিন পরই সাকিব যার সাথে কথা বলেন, সেই গুরু সালাউদ্দীনও প্রায় একই কথা জানিয়েছেন। সাকিবের অনুশীলন করা ও দেশে ফেরা নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপে সালাউদ্দীনের কথা, ‘আমার সাথে দু’দিন আগেও কথা হয়েছে। সেখানে সাকিব এমন কিছু বলেনি, যা শুনে মনে হয় সে লন্ডন যাবে। তবে এটা নিশ্চিত সাকিব সেপ্টেম্বর থেকে দেশেই অনুশীলন শুরু করবে এবং সম্ভবত বিকেএসপিতেই আবার মাঠে ফেরার কাজটা শুরু করতে চায়; কিন্তু সেটা কি এ আগস্ট মাসেই ফিরে, নাকি আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে তা নিয়ে এখনো কথা হয়নি।’