লাদাখ সীমান্তে আবারো উত্তেজনা বৃদ্ধি, ফের চীনা সেনা মোতায়েনের দাবি ভারতের

৮ই Auguই, ২০২০ || ১০:৫২:৪৯
13
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
ভারতের লাদাখ সীমান্তে নতুন করে উত্তেজনা শুরুর পর ফের বৈঠকে বসেছে ভারত ও পাকিস্তানের সামরিক কর্মকর্তারা। পূর্ব লাদাখের দৌলত বেগ ওল্ডিতে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় (এলএসি) মেজর জেনারেল পর্যায়ের বৈঠকে দেপসাঙ এলাকা থেকে সেনা সরানো নিয়েই এই আলোচনা।

ভারতের দাবি, দেপসাঙের ওপারে ১৫ হাজার সেনা, ট্যাঙ্ক, কামান মোতায়েন করেছে চীন।
ভারতীয় সেনাবাহিনীর সূত্রের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি এবং আনন্দবাজার জানায়, গত কয়েক দিন ধরেই দেপসাঙে দুই দেশের সেনা মোতায়েনকে ঘিরে একটা চাপা উত্তেজনা তৈরি হচ্ছিল। পরিস্থিতি যাতে আরও উত্তপ্ত না হয়, সে কারণেই শনিবারের এই বৈঠক।

ভারতের পক্ষে মেজর জেনারেল অভিজিৎ বাপত এবং তিন মাউন্টেইন ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কম্যান্ডিং (জিওসি) বৈঠকে অংশ নিয়েছেন। দেপসাঙে চীনের সেনা মোতায়েনের বিষয়টিই তুলে ধরা হবে বৈঠকে। পাশাপাশি, ওই এলাকায় ভারতীয় সেনার টহলদারিতে বাধা দেওয়ার প্রসঙ্গটিও তোলা হবে।

সেনা সূত্রে আনন্দবাজার জানিয়েছে, লাদাখের উত্তরে অবস্থিত দেপসাঙের রণকৌশলগত গুরুত্ব রয়েছে। চীন বারবার সেখানে সমস্যা তৈরির চেষ্টা করে। ২০১৩ ও ২০১৪ সালে সেখানেই দুই দেশের সেনা সংঘর্ষে জড়িয়েছিল।

গত জুনে গালওয়ান উপত্যকায় প্রাণঘাতী সংঘর্ষের পর থেকে ভারত-চীনের মধ্যে যেসব বৈঠক হয়েছে, তার মধ্যে মূলত চারটি স্থানের ওপর জোর দেয়া হয়েছিল। সেগুলো হল প্যাট্রল পয়েন্ট ১৪, ১৫, ১৭এ এবং প্যাংগং লেক। এ বার দেপসাঙ থেকে সেনা সরানোর বিষয়ে দুই দেশ উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসলো।