দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় যানবাহনের তীব্র চাপ, দীর্ঘ সারি

৭ই Auguই, ২০২০ || ০১:৫৬:০৭
17
Print Friendly, PDF & Email

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, রাজবাড়ী:
ঈদের ছুটি শেষে আজও ঢাকাসহ দেশের বিভিন্নস্থানে যেতে কর্মমুখী মানুষের চাপ দেখা গেছে দৌলতদিয়া ফেরি ও লঞ্চ ঘাটে। এদিকে, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ-রুটে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি পারাপার ব্যহত হচ্ছে। এতে আগের চাইতে দ্বিগুনেরও বেশি সময় লাগছে যানবাহনগুলো ফেরি পার হতে।

এছাড়া দৌলতদিয়ায় রয়েছে ফেরি ও ঘাট সঙ্কট। এ কারণে দৌলতদিয়া প্রান্তে মহাসড়কে ৪ শতাধিক যানবাহন ফেরি পারের অপেক্ষায় থাকতে দেখা গেছে। তবে প্রতিদিনের মত বেলা যত গড়িয়ে যাবে যানবাহনের সংখ্যাও তত বাড়বে বলে জানায় ঘাট কর্তৃপক্ষ।

ঈদের পর ১৯টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হলেও শুক্রবার ১৬টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। ফেরির সংখ্যা কম ও ঘাট সঙ্কট এবং তীব্র স্রোতের কারণে যানজট লেগেই থাকছে দৌলতদিয়া প্রান্তের ঘাটগুলোতে। তবে স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে ঈদে কর্মমুখী মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ায় এ যানজট তৈরি হয়েছে। এতে এ রুটে চলাচলকারী যাত্রী ও যানবাহন চালকদের নদী পার হতে সময় লাগছে ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা করে। দীর্ঘ সময় বসে থেকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

শুক্রবার সকাল থেকে দৌলতদিয়া প্রান্তে ঢাকামুখী যানবাহনের মধ্যে যাত্রীবাহী বাস, পণ্যবাহী ট্রাক, ব্যক্তিগত প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেল আরোহীদের ফেরি পার হতে চাপ দেখা গেছে বেশি। সবচেয়ে বেশি চাপ রয়েছে ব্যক্তিগত যানবাহনের।

বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ জানায়, গত কয়েকদিন ১৯টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হলেও ৩টি ফেরির যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়ায় তা বন্ধ রয়েছে। বর্তমানে এ নৌ-রুটে ১৬টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে যানবাহন।

দৌলতদিয়ায়-পাটুরিয়া নৌ-রুটে তীব্র স্রোত থাকায় ও ফেরির সংখ্যা কম থাকায় যানবাহন পারাপারে বেশি সময় লাগছে। অন্যান্য সময়ের তুলনায় ঈদের পর কর্মমুখী মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় দৌলতদিয়া ঘাটে কয়েকশ যানবাহন ফেরি পারেরর অপেক্ষায় রয়েছে। সময় যত গড়িয়ে যাবে যানবাহনের সংখ্যাও তত বাড়বে। যাত্রী পারাপারে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া-আরিচা নৌরুটে ৩৩টি লঞ্চ চলাচল করছে বলেও জানানো হয়।