উত্তেজনা তুঙ্গে: চীনের বিরুদ্ধে আবারও নিষেধাজ্ঞা দিল আমেরিকা!

11
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্কঃ
চীনের বিরুদ্ধে শত্রুতামূলক আচরণের অংশ হিসেবে দেশটির একটি কোম্পানি ও দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন সরকার। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় স্থানীয় সময় গতকাল (শুক্রবার) চীনা ‘শিনজিয়াং মেনুফ্যাকচারিং কোম্পানি’ এবং দুই ব্যক্তিকে নিষেধাজ্ঞার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে। এর কারণ হিসেবে চীনে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অজুহাত তুলে ধরেছে ওয়াশিংটন।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চীন ও আমেরিকার মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে রয়েছে। ট্রাম্প প্রশাসন সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের হিউস্টনে অবস্থিত চীনা কনস্যুলেট বন্ধ করার নির্দেশ দেয়।

চীন সরকার এ ঘটনাকে ‘উত্তেজনা সৃষ্টিকারী, একতরফা এবং আন্তর্জাতিক আইন ও রীতির লঙ্ঘনকারী’ হিসেবে অভিহিত করে। দু’দিন পর চীন সরকারও সেদেশের চেংদু শহরে অবস্থিত মার্কিন কনস্যুলেট বন্ধ করে দেয়ার নির্দেশ দেয়। এরইমধ্যে দুই দেশেরই এ সংক্রান্ত নির্দেশ বাস্তবায়িত হয়েছে।

ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে ক্ষমতায় এসেই চীনের বিরুদ্ধে একের পর বিদ্বেষী আচরণ করতে শুরু করেন।

চেংদুতে অবস্থিত মার্কিন কনস্যুলেট; গত সপ্তাহে এটি বন্ধ করে দিয়েছে চীন এসব আচরণের মধ্যে রয়েছে চীনা পণ্যের ওপর অতিরিক্ত শুল্ক আরোপ, হুয়াওয়ে’সহ বড় বড় চীনা কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ, চীনের বিচ্ছিন্নতাবাদী দ্বীপ তাইওয়ানের সঙ্গে ওয়াশিংটনের সম্পর্ক শক্তিশালী করা, দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন সামরিক উপস্থিতি জোরদার, সাম্প্রতিক সময়ে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার দায় বেইজিংয়ের ওপর চাপিয়ে দেয়া এবং সর্বশেষ চীনা কনস্যুলেট বন্ধ করে দেয়া।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের এ ধরনের পাগলামি আচরণের কারণে দিন দিন গোটা বিশ্ব থেকে আমেরিকা একঘরে হয়ে যাচ্ছে বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন।