ফেসবুক, গুগল, ইউটিউবকে ভ্যাট দিতে এনবিআরের নির্দেশনা

২৬ই জুন, ২০১৯ || ০২:২০:২৭
19
Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাঃ
বাংলাদেশে বিদেশি টিভি চ্যানেলে সম্প্রচারিত সেবা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ভাইবার, ইয়াহু মেসেঞ্জার, ইউটিউব, সার্চ ইঞ্জিন গুগুলসহ ডিজিটাল মাধ্যমগুলোতে প্রচারিত সেবার বিপরীতে ভ্যাট নিতে ভ্যাট এজেন্ট নিয়োগের নির্দেশনা জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

বুধবার (২৬ জুন) জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে এই নির্দেশনা জারি করা হয়। আগামী ১ জুলাই থেকে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে এই ভ্যাট দিতে হবে।

ওই নির্দেশনায় জানানো হয়, ফেসবুক, গুগল, ইউটিউব, ভাইবার, ইয়াহু ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন, ভয়েস বা মেসেজ বা অনুরূপ সেবা প্রদানকারী সকল প্রতিষ্ঠানকে ভ্যাট এজেন্ট নিয়োগ করতে হবে। ভ্যাট আইন অনুযায়ী ওইসব প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ১৫ শতাংশ ভ্যাট নেওয়া হবে।

নতুন ভ্যাট আইন অনুযায়ী, দেশে ব্যবসা পরিচালনা করতে চাইলে ফেসবুক, ইউটিউব ও গুগলের মতো প্রতিষ্ঠানকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড থেকে ভ্যাট নিবন্ধন নিতে হবে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে তাদের অফিস স্থাপন করতে হবে অথবা এসব প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশে তাদের মূসক এজেন্ট নিয়োগ দিতে হবে।

প্রতিষ্ঠানগুলো আইন না মানলে ব্যবস্থা নেবে এনবিআর। সেক্ষেত্রে এসব প্রতিষ্ঠানের সাইট বন্ধ করে দিতে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) চিঠি দেবে প্রতিষ্ঠানটি।

ফেসবুক, গুগল, হোয়াটসঅ্যাপ, ইয়াহু, ইউটিউবসহ বিভিন্ন অনলাইনভিত্তিক ডিজিটাল মার্কেটিং কোম্পানি বাংলাদেশ থেকে বিজ্ঞাপন বাবদ প্রতিবছর প্রায় ২ হাজার কোটি টাকা নিয়ে যাচ্ছে। সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় এবং সরকার অনুমোদিত ব্যাংকের মাধ্যমে পেমেন্ট ট্রান্সফারের পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় এই পুরো টাকাটাই যাচ্ছে অবৈধ চ্যানেলে।

নন-ব্যাংকিং চ্যানেলে এ টাকা পরিশোধ হওয়ায় এ বিষয়ে সরকারের কাছে কোনো তথ্য নেই। এমনকি এর বিপরীতে কোনো রাজস্বও পায় না সরকার। তাই ডিজিটাল মাধ্যমগুলোর কাছ থেকে ভ্যাট নিতে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে।