শার্শা সীমান্তে যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ

১০ই জুন, ২০২০ || ০৪:৪৭:০৪
5
Print Friendly, PDF & Email

যশোর থেকে করসপন্ডেন্ট:
যশোরের শার্শা সীমান্তে পাঁচভুলোট গ্রামের গাজিপাড়া ইছামতি নদীতে শরিফুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত শরিফুল পুটখালী রাজগঞ্জ গ্রামে মৃত ইসহাক আলীর ছেলে। তার বুকে গুলির চিহ্ন রয়েছে। বুধবার (১০ জুন) সকাল ১১টার সময় লাশটি এলাকাবাসি দেখতে পেয়ে বিজিবি ও পুলিশকে খবর দিলে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

পাঁচ ভূলোট গ্রামের নিসার আলী জানান,বুধবার বেলা ১১টার দিকে স্থানীয় লোকজন নদীতে গেলে নিহতের লাশ দেখে বিজিবিকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে বিজিবি পৌছে তার লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, গত সোমবার (৮ জুন) শরিফুল বাড়ি থেকে বের হয়। তার আত্মীয়-স্বজনরা খোঁজাখুঁজি করে তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। দুই দিন পর পাঁচ ভুলোট গ্রামের গাজিপাড়া ইছামতি নদীতে লাশ ভাসতে দেখা যায়। সে মাঝে মধ্যে গরু আনতে ভারতে যায়।

নিহত যুবকের দাদা কওসার আলী বলেন, নিখোঁজ হওয়ার রাতে পুটখালির রাজগজ্ঞ গ্রামের তাজুল এর সাথে বের হয়। তাজুল বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন লোকজন দিয়ে ভারত থেকে গরু ও বিভিন্ন মাদকদ্রব্য বাংলাদেশে নিয়ে আসে। যেহেতু শরীরে গুলির চিহৃ রয়েছে সে কারণে ভারতের সীমান্তরক্ষীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে লাশ নদীতে ফেলে দিতে পারে এবং নিহত শরিফুল তাজুলের হয়ে কাজ করে থাকে বলে সীমান্তের একাধিক সূত্র জানান।

পুলিশের নাভারন সার্কেল এএসপি ইমরান খান ও শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা বদরুল আলম ও বিজিবি নায়েব সুবেদার মজিবুর রহমানের উপস্থিতিতে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

বাগআঁচড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ আনারুল ইসলাম জানান, বিজিবি ও স্থানীয়দের মাধ্যমে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শষ্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোট না দেখে নিশ্চিত করা যাচ্ছে না তার মৃত্যুর রহস্য। রিপোট পেলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। তবে তার বুকে গুলির চিহ্ন রয়েছে বলে তিনি জানান।