ভেঙে দেয়া হচ্ছে মিনিয়াপোলিস পুলিশ বিভাগ

৮ই জুন, ২০২০ || ০৪:২৭:১৬
7
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডকে নির্যাতন করে হত্যার জেরে মিনিয়াপোলিসের গোটা পুলিশ বিভাগই ভেঙে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিটি কাউন্সিল। রোববার কাউন্সিলের ১২ সদস্যের মধ্যে নয়জনই ‘বিষাক্ত’ হয়ে ওঠা এ পুলিশ বিভাগে অর্থ বরাদ্দ বন্ধ করে সেটি ভেঙে দেয়ার বিষয়ে সম্মতি জানান।

এদিন সিটি পার্কে শত শত জনতার সামনে দাঁড়িয়ে কাউন্সিলের সদস্যরা প্রতিজ্ঞা করেন, তারা মিনিয়াপোলিসের পুলিশ বিভাগের বর্তমান রূপ বদলে দেবেন।

police

স্থানীয় সিটি কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট লিসা বেন্ডার বলেন, ‘আমরা এখানে, কারণ আমরা আপনাদের ডাক শুনতে পেয়েছি। আমরা এখানে কারণ, জর্জ ফ্লয়েড পুলিশের হাতে মারা গেছেন। আমরা এখানে কারণ, এটা পরিষ্কার যে মিনিয়াপোলিসসহ যুক্তরাষ্ট্রের শহরগুলোতে বিদ্যমান পুলিশ ও জননিরাপত্তা ব্যবস্থা আমাদের সম্প্রদায়কে নিরাপদে রাখতে পারছে না। আমাদের ক্রমবর্ধমান সংস্কার প্রক্রিয়া ব্যর্থ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এই শহরের সঙ্গে মিনিয়াপোলিস পুলিশ বিভাগের বিষাক্ত সম্পর্ক শেষ করতে আমরা প্রতিশ্রতিবদ্ধ। যে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আসলেই মানুষকে নিরাপদে রাখবে সেটি তৈরি করার প্রতিজ্ঞা করছি।’

তবে, পুলিশ বিভাগ ভেঙে দেয়ার এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন মিনিয়াপোলিসের মেয়র জ্যাকব ফ্রে।

কাউন্সিলের সিদ্ধান্তের পর এক বিবৃতিতে মেয়র বলেছেন, ‘আমি পুলিশ প্রধান অ্যারাডোন্ডো এবং জনগণের পাশাপাশি কাঠামোগত সংস্কার ও পুলিশ সংস্কৃতিতে বর্ণবাদ মোকাবিলায় নিরলস কাজ করব। আমরা শহরের পক্ষে সম্প্রদায়ের নেতৃত্বাধীন জননিরাপত্তার আরও কৌশল তৈরি এবং কার্যকর করতে প্রস্তুত। তবে আমি মিনিয়াপোলিসের পুলিশ বিভাগ বাতিল করাকে সমর্থন করি না।’

সূত্র: ডেইলি মেইল