করোনাকালে রবীন্দ্রজয়ন্তী, ১৫৯ বছরে এ এক অন্য ২৫শে বৈশাখ

৮ই মে, ২০২০ || ০৭:১৯:৩৭
13
Print Friendly, PDF & Email

শাহ্ জামাল, কুষ্টিয়া:
সুদীর্ঘ দেড়শ’ শতাব্দী পর এসে ২০২০-তে সেই চেনা ছবি আর ধরা দিল না। দীর্ঘ ১৫৯ বছরে এ এক অন্য সকাল। নেই কোনও আড়ম্বর, নেই শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে হাজারো ভক্তের ভিড়। রবীন্দ্রজয়ন্তী পালন এ বছর লকডাউনে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিনে নূন্যতম অনুষ্ঠানের আয়োজন। বন্ধ রাস্তা পথঘাট। নেই জনসংযোগের অনুমতী। যে রবীন্দ্রজয়ন্তী ভক্তদের দূর দূরান্ত থেকে এক ছাদের তলায় নিয়ে আসত, যে ২৫ বৈশাখ কুষ্টিয়ার শিলাইদহ ঠাকুর বাড়িতে উপচে পড়া ভিড়ের সাক্ষী থাকত আজ তা ম্লান।

যে কবি চার দেওয়ালের গণ্ডি থেকে বেরিয়ে মুক্ত বাতাসে শ্বাস নেওয়ার কথা বলে গিয়েছেন, সেই কবিগুরু স্মরণ এবার কোয়ারেন্টাইনে। জল পড়ে, পাতা নড়ে থেকে শুরু, পনেরো বছর বয়সে বনফুল রচনা করে ফেলেছিলেন তিনি। দেশের সর্বত্র নাম ছড়িয়ে পড়ে এই পনেরো বছরের ভানুসিংহ ঠাকুরের। একের পর এক কালজয়ী রচনা সৃষ্টি হতে থাকে তাঁর কলমের আঁচড়ে। বিশ্বব্যাপী সমাদৃত বিশ্বকবির জন্মদিন পালন করা হয়ে থাকে মহাসমারহে। ১৫৯ তম বছরে এসে চেনা ছবিটা বদলে গেলেও, আবেগ রইল একই, সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় উপচে পড়া রবীন্দ্র জয়ন্তীর শুভেচ্ছাবার্তা, অনলাইনে অনুষ্ঠানের মধ্যেদিয়েই রবীস্মরণে সামিল আপামর বাঙালি।

কুষ্টিয়ার কুঠিবাড়িতে অনেকটা নিরবেই পালিত হল বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৯ তম জন্মবার্ষিকী। করোনা ভাইরাসের কারণে কবিগুরুর জন্মবার্ষিকীর কোনো অনুষ্ঠান’র আয়োজন করেনি কর্তৃপক্ষ। তাই কুঠিবাড়ীতে নেই কোন আনন্দ আয়োজন। অথচ প্রতিবছর বিশ্বকবির জন্মবার্ষিকীতে তিন দিনব্যাপী থাকে বর্ণাঢ্য নানা অনুষ্টানমালা। বসে গ্রামীণ মেলা। করোনা ভাইরাস এবার সবকিছুই ওলোটপালোট করে দিয়েছে। থমকে দিয়েছে স্বাভাবিক জীবনযাত্রাও। তাই নীরবে-নিভৃতেই কাটছে এবারে বিশ্বকবির জন্মদিনটি।

কুষ্টিয়া শহর থেকে মাত্র ১৬ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত শিলাইদহ কুঠিবাড়ি। পদ্মা নদীর তীরবর্তী ছায়াশীতল ও নিরিবিল পরিবেশ থাকার কারণে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন তাঁর স্মৃতিধন্য শিলাইদহের কুঠিবাড়িতে। এখানে বসেই তিনি রচনা করেছেন কালজয়ী অনেক কাব্যগ্রন্থ, ছোট গল্প, নাটক ও উপন্যাস। তাই রবীন্দ্র সাহিত্যে শিলাইদহের গুরুত্ব অপরিসীম।

কবির স্মৃতিবিজড়িত কুঠিবাড়িতে বছর জুড়ে দর্শনার্থীদের ভীড় লেগে থাকলেও প্রায় দুই মাস ধরে এখানে শুনসান নীরবতা। মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে বন্ধ রয়েছে কুঠিবাড়ি। তাই দর্শনার্থীদের আনাগোনা আর নেই। অথচ ২৫ বৈশাখ আসলেই কুঠিবাড়িত পা ফেলার জায়গা থাকে না। বাঙ্গালী স্বত্বাকে বিশ্বদরবারে নতুন করে যে মনিষী পরিচয় করিয়েছেন তিনিই বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।