৫০ হাজার ইয়াবাসহ আটকের পর বন্দুকযুদ্ধ, ব্যবসায়ী নিহত

16
Print Friendly, PDF & Email

কক্সবাজারের টেকনাফে ইয়াবাসহ আটকের পর আরও ইয়াবা উদ্ধারে গেলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।  গতকাল বুধবার রাতে (১৫ মে) রাত ৯টার দিকে সাবরাং ইউনিয়নের আচারবনিয়া লবণ মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তি মো. সিরাজ (২৭) সাবরং ইউনিয়নের আচার বনিয়া এলাকার ফজল আহমদের ছেলে। টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সাল খান সংবাদের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার (১৪ মে) রাতে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ওই সিরাজকে আটক করা হয়। তার স্বীকারোক্তিকে জানা যায়, বুধবার রাতে নাফ নদ হয়ে লবণের মাঠ দিয়ে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা প্রবেশ করবে- এমন তথ্যের ভিত্তিতে এই এলাকায় ইয়াবা উদ্ধারে গেলে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা চোরাকারবারিরা বিজিবি ও পুলিশের উপর এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে।

এসময় পুলিশ ও বিজিবির দু’জন করে চার সদস্য আহত হন। পরে বিজিবি ও পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়তে বাধ্য হয়। তিনি জানান, অস্ত্রধারীদের সঙ্গে ৫ থেকে ৭ মিনিট গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে চোরাকারবারিরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে এক যুবককে গুলিবিদ্ধ উদ্ধার ও ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, দুইটি এলজি, তাজা কার্তুজ ও আট রাউন্ড খালি খোসা উদ্ধার করা হয়।

গুলিবিদ্ধ সিরাজকে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে  প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠান। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থা তার মৃত্যু হয়।  আহত বিজিবি সদস্য মো. জহিরুল ইসলাম ও মোহাম্মদ রানাসহ  পুলিশের অপর দুই সদস্যকে টেকনাফ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা দেয়া হয়।