বাংলাদেশে না আসলেও ভারতের চালের বাজারে কোনো প্রভাব পড়েনি

17
Print Friendly, PDF & Email

ভারত থেকে বাংলাদেশে চাল আসছে না। এতে ভারতের চালের বাজারে কোনো প্রভাব পড়েনি।
বেনাপোলের আমদানীকারক বেল্লাল হোসেন জানান, মাস পাঁচেক হয়েছে ভারত থেকে চাল আসা প্রায় পুরোপুরি বন্ধ রয়েছে। তাতে ভারতের চালের বাজারে দামের হেরফের হয়নি।

rice


ভারত বাংলাদেশ ছাড়াও পৃথিবীর বহু দেশে চাল রপ্তানী করে থাকে। বেশ কিছুদিন হয় ভারত আফ্রিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাল রপ্তানী করছে। এদিকে ভারত থেকে না আসলেও বাংলাদেশের চালের বাজার স্থিতিশীল রয়েছে। আমরা যারা চাল আনতাম তাদের অনেকেই এখন ভারত থেকে মুশুরির ডাল ও ছোলাসহ অন্যান্য জিনিস আনছি। মুশুরীর ডাল ও ছোলার ওপর কোনো আমদানী শুল্ক নেই। তবে চালের ওপর রয়েছে ২৮% শুল্ক।


ভারতের পশ্চিম বাংলার নদীয়া জেলার শান্তিপুরের প্রকৌশলী পরিমল বিশ্বাস জানালেন, গুণমান অনুযায়ী এখানে কিলো প্রতি চাল ৩০ রুপি থেকে ৫০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। রপ্তানীতো আছেই তার ওপর ১৩০ কোটি মানুষের এই দেশে আভ্যন্তরিন কনজামশনও অনেক। বাংলাদেশে রপ্তানী না হওয়ায় এখানে চালের দামের ওপর কোনো প্রভাব পড়েনি।