বিশ্বকাপ স্কোয়াডে এখন তাসকিন, কপালে হাত রাহীর!

১১ই মে, ২০১৯ || ১০:০০:৩৪
18
Print Friendly, PDF & Email

আসন্ন ওয়ানডে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসরের জন্য গেল ১৬ এপ্রিল ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ১৫ সদস্যর এই দলে ১৩ জনের নাম আগে থেকেই অনেকটা অনুমেয় ছিল। দ্বিধা ছিল কেবল দুটি জায়গা নিয়ে।

এই দুই জায়গার একটিতে চমক হিসেবে বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ডাক পান আবু জায়েদ রাহী। কেননা আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত অভিষেকই হয়নি ডানহাতি এই পেসারের। মূলত তাসকিন আহমেদের ইনজুরি ও ইংল্যান্ডের কন্ডিশন বিবেচনা করে বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দলে জায়গা পেয়েছিলেন ওয়ানডে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ২৫ বছর বয়সী এই পেসার।

এবার সেই তাসকিনের কারণে কপাল পুড়ছে রাহীর। দৈনিক কালের কণ্ঠের এক প্রতিবেদন থেকে জনা গেছে, বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াডে পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে। দলে অন্তর্ভুক্ত করা হতে পারে তাসকিন আহমেদকে। সেক্ষেত্রে কপাল পুড়বে রাহীর।

তাসকিনকে জায়গা করে দিতে স্কোয়াড থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছেন সিলেটের তরুণ এই পেসার। তবে ১৬তম সদস্য হিসেবে রাহীকে ইংল্যান্ডে নিয়ে যাওয়া হবে। কালের কণ্ঠের ওই প্রতিবেদন থেকে আরও জানা গেছে, রাহীর জায়গায় তাসকিন আহমেদের নাম ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিলে (আইসিসি) পাঠানোর সিদ্ধান্ত একরকম হয়েই গেছে। কেননা ২৩ মে পর্যন্ত কোনো রকম কারণ দেখানো ছাড়াই বিশ্বকাপের স্কোয়াডে পরিবর্তন আনার সুযোগ রেখেছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সেই সুযোগটাই নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

এদিকে বিশ্বকাপ স্কোয়াডের সদস্য হলেও উইন্ডিজের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে রাখা হয়নি রাহীকে। এমনকি প্রস্তুতি ম্যাচেও খেলার সুযোগ মেলেনি ডানহাতি এই পেসারের। এমনকি দলের নির্ধারিত কিংবা অনির্ধারিত অনুশীলনেও বাংলাদেশ দলের প্রশিক্ষণ পরিকল্পনায় আবু জায়েদকে সেভাবে দেখা যায়নি। তার মর্যাদা ছিল বড়জোর স্থানীয় কোনো নেট বোলারের!

ফরহাদ রেজা, ইয়াসির রাব্বি কিংবা নাঈম হাসানরা বিশ্বকাপ স্কোয়াডে নেই। ত্রিদেশীয় সিরিজের ভাবনাতেও নেই তারা। তবু নেটে প্রায় নিয়মিত কোচিং স্টাফদের দৃষ্টিসীমায় দেখা যাচ্ছে তাদের। অনুপস্থিত ছিলেন কেবল রাহী। এবার এই অনুপস্থিতির কারণটাও স্পষ্ট হতে চলেছে।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু অবশ্য অন্য ব্যাখ্যা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘ও (রাহী) তো চোটের কারণে এত দিন বোলিংই করতে পারছিল না। স্থানীয় ফিজিও যে প্রতিবেদন দিয়েছিল সে মতে সব কিছু হয়নি। আমাদের বলা হয়েছিল তিন-চার দিনে সেরে উঠবে।’

রাহীর এই ‘রহস্যময়’ চোটকেই ঢাল হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছে বাংলাদেশ। সেটাও স্পষ্ট হয়েছে প্রধান নির্বাচকের কথায়। তার ভাষ্য, ‘চোট থাকলে তো পরিবর্তন করতেই হবে। তবে আমরা রাহীকে বিশ্বকাপে নিয়ে যাব। সে ক্ষেত্রে দলটা ১৬ জনের হবে। এটা নিয়ে বোর্ড সভাপতির সঙ্গে কথা হচ্ছে।’