বিশ্বকবির জন্মবার্ষিকী পালিত হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে

38

১২৬৮ বঙ্গাব্দে কলকাতার জোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়িতে আজকের (৯ মে) দিনেই জন্মেছিলেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। 

কবির সেই জন্মভিটায় আজ তার ১৫৮তম জন্মদিবস উপলক্ষে সারাদিন ব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সকালে সেখানে প্রভাতফেরির মধ্য দিয়ে জন্মদিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। চলবে সন্ধ্যা পর্যন্ত।

এছাড়াও কবির স্বপ্ন প্রতিষ্ঠান শান্তিনিকেতনেরও চলছে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে কবি প্রণাম। ভোরবেলায় গৌরপ্রাঙ্গনে বৈতালিকের মধ্য দিয়ে শুরু হয় রবীন্দ্র জন্ম জয়ন্তীর অনুষ্ঠান। উত্তরায়ণে হয় কবিকণ্ঠও। প্রথা অনুযায়ী সকাল ৭টায় উপাসনা গৃহে শেষ হয়ে এই কবিকণ্ঠের আয়োজন। 

বিশ্বভারতীর উপাচার্য শ্রী বিদ্যুৎ চক্রবর্তী, ঠাকুর পরিবারের সদস্য তথা প্রবীণ আশ্রমিকসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী, অধ্যাপক-অধ্যাপিকারা ও আশ্রমিকদের উপস্থিতিতে বিশ্বকবিকে শ্রদ্ধা নিবেদনও চলে। একই সঙ্গে সকাল থেকেই সেখানে চলছে বৈদিক মন্ত্রপাঠ, ব্রহ্ম উপাসনা, রবীন্দ্রসঙ্গীতের নানা আয়োজন।

বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জন্মদিন পালন হয় ১৯৩৬ সালে। আগে বর্ষবরণ ও গুরুদেবের জন্মদিন একসঙ্গে পালিত হত। কারণ প্রচণ্ড দাবদাহ ও জল কষ্টের জন্য বিশ্বভারতীতে ছুটি পড়ে যেত, ২৫ শে বৈশাখ ছুটি থাকত। এখন অবশ্য সেই পরিস্থিতি নেই। তাই ২৫ বৈশাখে আলাদাভাবে গুরুদেবের জন্মদিন পালিত হয়।

প্রসঙ্গত, বিশ্বভারতীতে প্রথম নববর্ষ পালিত হয় ১৯৩৬ সালের ১৫ এপ্রিল। সেটা বাংলায় ১৩৪৩ সাল। ১৯৪১ সালের ১৪ এপ্রিল, তথা বাংলা ১৩৪৮ সালের ১ বৈশাখ বর্ষবরণের দিন কবির জীবদ্দশায় শেষ জন্মদিন পালন হয়।