ফারাক্কা বাঁধের গেট খোলা: বন্যার ঝুঁকিতে মুর্শিদাবাদ ও বাংলাদেশ

15

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
অবিরাম বৃষ্টিতে ভারতের উত্তর প্রদেশ ও বিহারে সৃষ্টি হওয়া ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ফারাক্কা বাঁধের সবগুলো গেট খুলে দিয়েছে ভারত। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর) ভারতের এই সিদ্ধান্তের ফলে দ্রুত পানি নেমে গিয়ে তা দেশটির বন্যা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করেছে। কিন্তু ফারাক্কা বাঁধের সবগুলো গেট খুলে দেওয়ার কারণে বন্যার ঝুঁকিতে আছে মুর্শিদাবাদ ও বাংলাদেশ। খবর জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এদিকে, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে এক বার্তায় জানিয়েছে, প্রতিবছর জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ফারাক্কা বাঁধের গেট খুলে দেওয়া নিয়মিত ব্যবস্থাপনার অংশ। অতিবৃষ্টির ফলে উজানে ভারতের বিভিন্ন জেলায় এবং ভাটিতে বাংলাদেশে বন্যার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানাচ্ছে, সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) গঙ্গা ছাড়াও ফুলহর, মহানন্দা ও কালিন্দী নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। একাধিক জায়গায় বাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা ডুবে গেছে। বন্যায় ভারতে মৃতের সংখ্যা দেড়শ ছাড়িয়ে গেছে। মধ্য রাজস্থানেও বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। ভারতের পাটালিপুত্রের সংসদ সদস্য রবি শংকর প্রসাদের অনুরোধে কেন্দ্রীয় পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় ফারাক্কা বাঁধের সবগুলো গেট খুলে দেওয়া হয়েছে।

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) রাতে জানিয়েছে, বন্যার আশঙ্কা প্রসঙ্গে প্রকৃত তথ্য হচ্ছে— প্রতিবছর জুলাই থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ফারাক্কা বাঁধের গেট খুলে দেওয়া নিয়মিত ব্যবস্থাপনার অংশ। প্রকৃতপক্ষে গত কয়েকদিন গঙ্গা ও পদ্মা অববাহিকার উভয় অংশে নিম্নচাপের কারণে অতি বৃষ্টি হচ্ছে। এতে নতুন করে পানির উচ্চতা বাড়ছে। অতিবৃষ্টির ফলে উজানে ভারতের বিভিন্ন জেলায় ও ভাটিতে বাংলাদেশে বন্যার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার সতর্ক রয়েছে এবং যথাযথ প্রস্তুতিও রয়েছে।