মাকে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ায় ছেলের কারাদণ্ড

29

নিউজবিটোয়েন্টিফোর.কম কুষ্টিয়াঃ
মেয়ের বাড়ি থেকে গতকাল শনিবার বিকেলেই নিজের ছেলের বাড়িতে যান এক মা। কিন্তু ছেলে তাঁকে ঘরে ঢুকতেই দেননি, বাড়ি থেকে বের করে দেন।

প্রতিবেশীরা বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। এমনকি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) সদস্য গিয়েও মাকে ওই বাড়িতে রাখার বিষয়ে ছেলেকে রাজি করাতে পারেননি। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ছেলেকে দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

গতকাল শনিবার রাত নয়টার দিকে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রামের ঘটনা এটি।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম মজনু (৬০)। তিনি পেশায় কৃষক।

ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহেল মারুফ গতকাল রাত সোয়া নয়টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে বৃদ্ধার ছেলে মজনু মিয়াকে দুই মাসের কারাদণ্ড দেন। তবে আজ রোববার সকালে ওই ছেলেকে ফেরাতে মা থানায় যান। ততক্ষণে ছেলেকে কুষ্টিয়া কারাগারেই পাঠিয়েছে পুলিশ।

ইউএনও সোহেল মারুফ বলেন, কৃষক মজনুর পাকা বাড়ি। বাড়ির সামনে পাকা ফটক। তাঁর জায়গা-জমিও আছে। দুই ছেলের বিয়ে হয়েছে। তাঁরাও বেশ সচ্ছল। তারপরও মজনু তাঁর মাকে বাড়িতে রাখতে নারাজ। তাই তাঁকে দণ্ড দিয়ে রাতেই কারাগারে পাঠানো হয়। আর মাকে তাঁর মেয়ের কাছে ফেরৎ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, ছেলে কারাগারে থাকবে—এমনটা মেনে নিতে পারেননি মা। আজ রবিবার সকালেই ইউএনওর কাছে ছুটে যান। ছেলে ভুল করেছেন—জানিয়ে তাঁকে ফেরত নিতে চান।

এ বিষয়ে ইউএনও বলেন, মা চাইছেন না তার ছেলে কারাগারে যাক। কিন্তু কিছুই করার নেই। দণ্ড হয়ে গেছে। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে আপিল করলে জামিন পেতে পারেন মজনু। এছাড়া কিছু করার নেই। তা ছাড়া কোনো সন্তান এভাবে মাকে বাড়ি থেকে বের করে দিক, এটাও কোনোভাবেই কাম্য নয়।