১০ বছরের জেল, মার্কিন ইউটিউব তারকার

29

অপ্রাপ্তবয়স্ক কিশোরীদের প্রলোভন দেখিয়ে আপত্তিকর ভিডিও ও ছবি নেওয়ার অভিযোগে এক ইউটিউব তারকার ১০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আদালত। অস্টিন জোনস নামের ‍ওই ইউটিউবার ছয় কিশোরীর কাছ থেকে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও নেওয়ার অভিযোগ স্বীকার করেছেন। 

‘সবচেয়ে বড় ভক্ত’ প্রমাণ করতে কিশোরীদের গোপন মেসেজে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও পাঠাতে বলতেন তিনি।  

সোমবার (০৬ মে) স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় শহরের এ যুবক ফেসবুকের মাধ্যমে অন্তত ৩০ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ের কাছ থেকে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও আদায় করেছেন। ভুক্তভোগীদের বেশিরভাগকেই তিনি বিভিন্ন ভিডিওতে মডেলিংয়ের সুযোগের লোভ দেখাতেন। বাকিদের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট বুস্ট করতে সাহায্য করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রতারক জোনস। 

বিখ্যাত পপ সংগীতের কভার গেয়ে জনপ্রিয় হয়েছিলেন ২৬ বছর বয়সী অস্টিন। ইউটিউবে তার ৫ লাখ সাবস্ক্রাইবার ও টুইটারে সোয়া ২ লাখ ফলোয়ার ছিলো।

দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় দু’টো অ্যাকাউন্টই মুছে ফেলা হয়েছে।

অস্টিন জোনস ২০১৭ সালে গ্রেফতার হলেও তার ইউটিউব চ্যানেল মুছে ফেলা হয় অনেক দেরিতে। এ নিয়ে বেশ সমালোচনায় পড়ে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাষ্ট্রের সহকারী অ্যাটর্নি ক্যাথরিন নেফ ওয়েলশ বলেন, শিশু পর্নগ্রাফি তৈরি বা গ্রহণ করা মারাত্মক অপরাধ। এটি আমাদের শিশু ও সমাজের জন্য হুমকিস্বরূপ। অস্টিন জোনস ভুক্তভোগী ও তাদের পরিবারের কাছ থেকে যা কেড়ে নিয়েছে, তা আর ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়।