বাংলাদেশে প্রথম জাতীয় নিরাপত্তা সেলের আত্মপ্রকাশ

32

স্পেশাল করসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও গঠিত হয়েছে জাতীয় নিরাপত্তা সেল। জাতীয় নিরাপত্তা সেলে মন্ত্রিসভার সিনিয়র সদস্য, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ ও চৌকষ ব্যক্তিরাও যুক্ত থাকছেন। অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ এই সেলের প্রধান নির্বাহী হিসেবে দায়িত্ব অপর্ণ করা হয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অত্যন্ত চৌকস ও দক্ষ বিদায়ী কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়াকে। ইতোমধ্যেই প্রধান নির্বাহীর নামে প্রজ্ঞাপনও জারি করা হয়েছে। এ সেলের বাকি অন্যান্য কর্মকর্তাদের নাম চূড়ান্ত ঘোষণা করা হয়নি।

সেল সংশ্লিষ্ট সূত্র বলেছে, নিরাপত্তা বিষয়ক যেকোন সিদ্ধান্ত দ্রুততম সময়ের মধ্যে নেয়াসহ জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ নানা বিষয়ে কাজ করবে নিরাপত্তা সেল। এই সেল দেশের অভ্যন্তরীণ সকল নিরাপত্তা, বহির্বিশ্বের সম্ভাব্য হুমকি মোকাবিলা, জঙ্গিবাদসহ নানা রকম নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়েও কাজ করবে। জানা গেছে, নবগঠিত প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয় হচ্ছে তেজগাঁও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। সেখান থেকে এর সকল কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সেখানেই দায়িত্ব পালন করবেন আছাদুজ্জামান মিয়া। তিনি সচিব পদমর্যাদায় কর্মরত থাকবেন।

তথ্যে জানানো হয়েছে, প্রতিবেশী দেশ ভারত, পাকিস্তান, মিয়ানমারসহ বিশ্বের অনেক দেশেই বিভিন্ন নামে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের মতো প্রতিষ্ঠান আছে। ওই প্রতিষ্ঠান সরকার প্রধানকে নিরাপত্তা বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে থাকে। এর মাধ্যমে সব ধরনের ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে সমন্বিতভাবে পরামর্শ আসে। এর ফলে সিদ্ধান্তের দায়ও এককভাবে কারও ওপর বর্তায় না। তবে ওই প্রতিষ্ঠান কেবল পরামর্শ দেয়, সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা সরকার প্রধানের হাতেই ন্যস্ত থাকে।

এদিকে, মঙ্গলবার রাতে বিদায়ী ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়াকে চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জাতীয় নিরাপত্তা সেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে নিয়োগ দেয় সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চুক্তি ও বৈদেশিক নিয়োগ শাখা। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) ইতিহাসে অত্যন্ত সফল কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়ার এ নিয়োগের চুক্তির মেয়াদ যোগদানের তারিখ থেকে ৩ বছর বলেও উল্লেখ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলেই এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, আছাদুজ্জামান মিয়াকে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর অথবা যোগদানের তারিখ থেকে পরবর্তী ৩ বছর মেয়াদে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অধীন জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত সেলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ প্রদান করা হলো। আদেশটি অবিলম্বে কার্যকরের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

১৯৬০ সালের ১৪ আগস্ট ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় জন্ম নেয়া মো. আছাদুজ্জামান মিয়া ১৯৮৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারী সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন।

ডিএমপি কমিশনার হিসেবে ২০১৫ সালের ৭ জানুয়ারি দায়িত্ব নেন মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। ডিএমপি কমিশনার হিসেবে যোগ দেয়ার আগে চট্টগ্রাম, খুলনা, সিলেট, সুনামগঞ্জ, পাবনা, টাঙ্গাইল, ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা ও রেঞ্জে দায়িত্ব পালনের পর হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

চলতি বছরের ১৩ আগস্ট তার চাকরির মেয়াদ শেষ হাওয়ার কথা ছিল। তবে ১৪ আগস্ট থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই সময় বাড়ানো হয়েছে জানিয়ে ঈদের ছুটির মধ্যে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় এক প্রজ্ঞাপন জারি করে।