আগস্টে সেনাবাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা

43

নিউজবিটোয়েন্টিফোর.কম ডেস্কঃ
পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা, সন্ত্রাসী গ্রেফতার, অস্ত্র উদ্ধার, জোড়া লাগানো যমজ শিশুর সফল অস্ত্রোপচার, মহাসড়কে আন্ডারপাস নির্মাণ প্রকল্প শুরুসহ আগস্ট মাসে বেশ উল্লেখযোগ্য কাজ করেছে সেনাবাহিনী।

মঙ্গলবার আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদফতর (আইএসপিআর) থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে এবং প্রয়োজনে নিজেদের জীবনকে উৎসর্গ করছে। গত আগস্ট মাসে পার্বত্য চট্টগ্রামে সেনাবাহিনীর টহল দলের সঙ্গে গুলি বিনিময়ের দুইটি পৃথক ঘটনায় ইউপিডিএফ (মূল) দলের এক শীর্ষ সন্ত্রাসীসহ চারজন সন্ত্রাসী নিহত হন। গত ১৮ আগস্ট সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গুলি বিনিময়কালে একজন সেনাসদস্য শাহাদৎবরণ করেন।

এ ছাড়া ২২ জন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার, ৮টি দেশি-বিদেশি অস্ত্র ও ৩৬ রাউন্ড অ্যামোনেশন উদ্ধার করে সেনাবাহিনী। একই সঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রামের যোগাযোগব্যবস্থা ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে নিয়মিতভাবে সেনাবাহিনী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছে।

এতে আরও বলা হয়, প্রধানমন্ত্রীর দিক নির্দেশনায় গত ১ আগস্ট ঢাকা সিএমএইচয়ে হাঙ্গেরির একটি মেডিকেল টিমের সহায়তায় ৩৩ ঘণ্টাব্যাপী যমজ বাচ্চা রাবেয়া ও রোকেয়ার জোড়া মাথা সফল অস্ত্রপাচারের মাধ্যমে আলাদা করা হয়। অপারেশনের পরে হাঙ্গেরির মেডিকেল টিমের সদস্যরা দেশে প্রত্যাবর্তনের পরে ঢাকা সিএমএইচ’র একটি মেডিকেল টিম সার্বক্ষণিক শিশু দুটিকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ ও চিকিৎসা সহায়তা দিয়ে আসছেন। প্রধানমন্ত্রী সার্বক্ষণিকভাবে বাচ্চা দুটির শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর রাখছেন।

গত ১৮ আগস্ট বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ চার দিনের সরকারি সফরে ইন্দোনেশিয়া গমন করেন। সেনাবাহিনী প্রধান ইন্দোনেশিয়া সেনাবাহিনী প্রধানের সঙ্গে সাক্ষাতকালে বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে সন্ত্রাস দমন, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনসহ অন্যান্য বিভিন্ন সামরিক ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক প্রশিক্ষণ সহায়তার ওপর বিস্তারিত আলোচনা করেন। এছাড়া সেনাবাহিনী প্রধান বাংলাদেশে বিদ্যমান রোহিঙ্গা সমস্যা এবং ভবিষ্যতে এ সমস্যার ফলে উদ্ভুত বিভিন্ন আঞ্চলিক সমস্যা ও নিরাপত্তা হুমকি নিয়েও আলোচনা করেন। একই সঙ্গে তিনি এ সমস্যা সমাধানকল্পে আসিয়ানের সদস্য রাষ্ট্র হিসেবে ইন্দোনেশিয়াকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের জন্য সে দেশের সেনাবাহিনী প্রধানের মাধ্যমে তাদের সরকার অনুরোধ জানান।

সেনাবাহিনী প্রধান ইন্দোনেশিয়া সশস্ত্র বাহিনীর কমান্ডারের সঙ্গে সাক্ষাতকালে বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সামরিক সহায়তার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য ইন্দোনেশিয়া হতে বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জামাদি ক্রয়ের সম্ভাবনার বিষয় নিয়েও আলোচনা করেন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনীর নিবিড় সম্পর্ককে আরও সুদৃঢ় ও প্রগাঢ় করার উদ্দেশ্যে ভারতীয় সেনাবাহিনীর ২০ সদস্যের ফুটবল দল গত ২৫-২৯ আগস্ট পর্যন্ত বাংলাদেশ সফর করে। এ সময় ভারতীয় সেনাবাহিনী ফুটবল দল ৪৬ স্বতন্ত্র পদাতিক ব্রিগেড ফুটবল দল ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ফুটবল দলের সঙ্গে প্রীতি ম্যাচে অংশগ্রহণসহ বেশ কিছু সামরিক ও অসামরিক স্থাপনা পরিদর্শন করে।

গত ২৯ জুলাই ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ঢাকা সেনানিবাস সংলগ্ন এমইএস বাসস্টপ এলাকায় একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় ২জন শিক্ষার্থী প্রাণ হারানোর পর প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি দিক-নির্দেশনায় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ওই মহাসড়কের বীরসপ্তক ক্রসিং পয়েন্টে একটি আন্ডারপাস নির্মাণ প্রকল্পটি অর্পণ করা হয়। সম্পূর্ণ নতুন প্রযুক্তিতে এই প্রকল্পের কার্যক্রম গত বছরের ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে জরুরি ভিত্তিতে শুরু করা হয়, যার নির্মাণ কাজ বর্তমানে চলমান রয়েছে এবং ইতোমধ্যে ৬০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।