বাহামা দ্বীপকুঞ্জে আঘাত হনেছে হারিকেন ‘ডোরিয়ান’

32

আন্তর্জাতিক ডেস্ক রিপোর্টঃ
যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের দ্বিতীয় ও সবচেয়ে প্রলঙ্কারী ঘূর্ণিঝড় ‘ডোরিয়ান’ উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হেনেছে। সোমবার (২ সেপ্টেম্বর) বার্তা সংস্থা বিবিসির প্রকাশিত খবরে জানা যায়, রোববার মধ্যরাতে দেশটির বাহামা রাজ্যের উপকূলীয় অঞ্চলে এটি আঘাত হানে।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ডোরিয়ান ৫ ক্যাটাগরির প্রলঙ্করী ঘূর্ণিঝড় হিসেবে বাহমার উপকূলীয় অঞ্চলে আছড়ে পড়েছে। রাজ্যের মার্শ হার্বার উপকূলীয় অঞ্চল দিয়ে এটি বাহামার মূল ভূ-খণ্ডে আঘাত করে। তারা জানায়, ডোরিয়ানের প্রভাবে অন্তত টানা দু’দিন এ অঞ্চলে প্রবল বৃষ্টিপাত ও ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। ঝড়টি ক্রমাগত শক্তিশালী হয়ে ফ্লোরিডা রাজ্যের দিকে তেরে যাচ্ছে।

ইউএস ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টার প্রকাশিত তথ্য মতে, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সাগর মৃদ্যু উত্তালে রয়েছে এবং জলের উচ্চতা স্বাভাবিকের চেয়ে অন্তত ২৩ ফিট পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। এটি ঘণ্টায় প্রায় ২৫০ কি. মি. বেগে ফ্লোরিডার মূল ভূ-খণ্ডের দিকে অগ্রসর হচ্ছে।

সংস্থাটি আরও জানায়, ডোরিয়ান প্রাথমিক পর্যায়ে রোববার সকালে ঘন্টায় প্রায় ২২০ কি. মি. বেগে ধেয়ে এসে ফ্লোরিডার নিকটবর্তী দ্বীপ ইলবোও কে এবং আবাকো আইল্যান্ডে আঘাত হানে। এ সময় বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় প্রায় ২৯৫ কি. মি.। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দ্বিতীয় এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় বাহামা অঞ্চলের যাবত কালের সবচেয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় হিসেবে আঘাত হানলো ডোরিয়ান।

এদিকে ডোরিয়ানকে ‘একটি চরম বিপজ্জনক ঝড়’ উল্লেখ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তিনি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। এছাড়া ডোরিয়ানের কারণে নিজের পূর্ব নির্ধারিত পোল্যান্ড সফর বাতিল করে ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সকে পাঠিয়েছেন ট্রাম্প।

এর আগে, ১৯৮০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানে ‘এলেন’ নামের একটি ঘূর্ণঝড় আঘাত হানে। যা এ যাবতকালের সবচেয়ে প্রলঙ্করী প্রশান্ত মহাসাগরীয় ঘূর্ণিঝড়। যেটি ঘণ্টায় প্রায় ৩০৬ কি. মি. বেগে মূল ভূ-খণ্ডে আঘাত হানে। দাবনীয় শক্তিধারী ৫ম ক্যাটাগরির ডোরিয়ান সে হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে দ্বিতীয় বিধ্বংশী ঘূর্ণিঝড় হিসেবে মার্কিন ভূ-খণ্ডে প্রলয়াঘাত হানলো।