তারা দিনের বেলায় পেশাজীবী কিন্তু রাতে করে ডাকাত

36

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ঢাকাঃ
তারা কেউ গাড়ি-অটোরিকশার ড্রাইভার, কেউ গার্মেন্টস শ্রমিক। দিনের আলোয় পেশাজীবী হলেও রাতের বেলায় তাদের একমাত্র কাজ হয় ডাকাতি। অন্ধকার ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে ‘ওরা’,—বলছিলেন র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সারওয়ার-বিন-কাশেম।

বুধবার (২৮ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এক ব্যবসায়ীকে হত্যা করে অর্থ ডাকাতির ঘটনায় জড়িতেদের সম্পর্কে এভাবেই বর্ণনা করেন তিনি।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সারওয়ার বলেন, ‘রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় একটি কুখ্যাত ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্যরা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। তারা নিজ নিজ এলাকায় টার্গেট নির্ধারণ করার পর পরিকল্পিতভাবে ডাকাতির জন্য ছক আঁকে। এভাবেই ডাকাত দলের সদস্যরা গত ১০ আগস্ট পশু ব্যবসায়ীরা রাজধানীতে গরু বিক্রি করে বাড়ি ফেরার পথে ডাকাতির শিকার হয় ডাকাত দলের সদস্যদের মারপিটের কারণে পশু ব্যবসায়ী কলিম উদ্দিন ফকির নিহত হয়। এ সময় ১২ লাখ টাকা নিয়ে যায় তারা।’

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলো, আমজাদ হোসেন (৪৫), বাবুল হোসেন (৪০), উজ্জল মিয়া (২৬) ও আজমল (২৭)।

র‌্যাব অধিনায়ক বলেন, ‘ওই ঘটনায় নিহত কলিম উদ্দিনের বোনের স্বামী মোহাম্মদ আলী শেখ বাদী হয়ে তুরাগ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে র‌্যাব বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। গতকাল রাতে আশুলিয়া বাজার থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।’

গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে টাকা উদ্ধার ও চক্রের বাকি সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলেও জানিয়েছেন র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক সারওয়ার বিন কাশেম।