ধর্ষণ ঠেকাতে গিয়ে মামা খুন, গণপিটুনিতে ধর্ষণচেষ্টাকারীর মৃত্যু

15

নিউজবি২৪ চুয়াডাঙ্গাঃ
চুয়াডাঙ্গা সদরে অষ্টম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর ধর্ষণ ঠেকাতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন ওই শিক্ষার্থীর মামা। পরে ধর্ষণের চেষ্টা করা ওই ব্যক্তিও এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে মারা গেছেন।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) দিবাগত মধ্যরাতে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আমিরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

গণপিটুনিতে মারা যাওয়া ওই ব্যক্তির নাম আকবর আলী (৩৫)। তিনিই ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এসময় বাধা দিলে ওই শিক্ষার্থীর মামা হাসান আলীকে (৩২) ছুরিকাঘাত করেছিলেন তিনি।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু জিহাদ ফখরুল আলম খান জানিয়েছেন, ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি জিহাদ জানান, দামুড়হুদা উপজেলার বড়মদনা গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে আকবর সদর উপজেলার আমিরপুর গ্রামে ভাড়া বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে তিনি পাশের এক বাড়িতে ঢুকে অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান।

এ সময় ওই শিক্ষার্থী চিৎকার করলে তার নানা ও মামা রুমে ছুটে যান। সেসময় আকবর তার সঙ্গে থাকা ছুরি দিয়ে তাদের এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকেন। আঘাতে ওই শিক্ষার্থী ও তার নানা আহত হন, ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান মামা।

ওই শিক্ষার্থীর চিৎকারে এর মধ্যে প্রতিবেশীরাও সেখানে উপস্থিত হন। তারা আকবরকে ঘরে গণপিটুনি দিলে তিনিও ঘটনাস্থলেই মারা যান।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। ওসি জানান, ধর্ষণচেষ্টাকারী আকবর আগেও নারীঘটিত কেলেঙ্কারিতে জড়িত ছিলেন বলে জানা গেছে।