দহনকাল

18

★নবীরুল ইসলাম বুলবুল★

দীর্ঘ দীর্ঘ দহনকাল পেরিয়ে চিলতে জল
পুড়তে পুড়তে হঠাৎ দখিনা হাওয়া
নিরেট আঁধার শেষে ভোরের শিউলি ফুল
আশা জাগানিয়া
ঠেলতে থাকে আরও দু’পা সামনে
হতাশ মানুষ বুঝি এভাবে এগোয়!

কাঠ কয়লা নিঃশেষিত ছাইয়ে
বুকের ভেতর কষ্টের আগুন নিয়ত পোড়ায়
যে পোড়ে সে জানে
ব্যক্তিগত অমাবস্যার রাত্রির ঘন অন্ধকারে
কেমন সে ক্ষয়ে যেতে থাকে
বাইরে থেকে কতটুকু দেখা আর যায়!

লোভাতুর শিয়ালগুলো উল্লাসিত
হায়েনা পাতে শিকারের ফাঁদ
বন্যশুয়োর ঘোঁৎঘোঁৎ করতেই থাকে
সত্য ও শুভ পুড়ে রোস্ট হয়ে গেলে
চেটেপুটে খাবে বলে
আগুনে দিচ্ছে ফুঁ নির্লজ্জ;
ভালোবাসা ছাড়া যে কিচ্ছু বুঝে না,
কোথায় দাঁড়াবে সে!

দহনকাল পেরুতে যদি কেউ পারে
তবেই না চিলতে জল!
দখিনা হাওয়া কিংবা ভোরের শিউলি ফুল!
পুড়তে পুড়তে রোস্ট
বন্য সব খাদকের ঝরছে লালা
যে পিছে পড়ে যায় সে জানে দহনের জ্বালা!

বুধবার, ১৩/১০/২০২১, সন্ধ্যা
মিতালি, ইস্কাটন গার্ডেন, রমনা, ঢাকা।