ঘরে ঝুলছিলো মায়ের মরদেহ, বিছানায় পড়ে শিশুসন্তানের নিথর দেহ

9

ডিষ্ট্রিক্ট করসপন্ডেন্ট, কুষ্টিয়া:
কুষ্টিয়া শহরে মা ও শিশুসন্তানের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে কুষ্টিয়া পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের থানাপাড়া এলাকার গড়াই নদ সংলগ্ন বাঁধপাড়া থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম।

নিহতরা হলেন- আকলিমা খাতুন (৩২) ও তার ৯ মাস বয়সী ছেলে জ্বীম। আকলিমা বাঁধপাড়া এলাকার মাজেদ মোল্লার মেয়ে ও একই এলাকার অটোরিকশাচালক রতনের স্ত্রী। আকলিমা দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তানের জননী। তিনি মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন।

নিহতের পরিবার, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোরের কোনো এক সময় বাড়ির সবার অজান্তেই শিশুটিকে হত্যা করে মা। তারপর ওড়না দিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে কুষ্টিয়া মডেল থানা পুলিশ আকলিমা ও তার ছেলের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

নিহতের স্বামী রতন বলেন, আমার স্ত্রী আকলিমা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল। কয়েকদিন আগে সে তার বাবার বাড়িতে যায়। সেখানে শ্বাসরোধে শিশুকে হত্যার পর নিজে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ বিষয়ে আমাদের কোনো অভিযোগ নেই।

স্থানীয় রেহেনা খাতুন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আকলিমা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। আমাদের ধারণা, প্রথমে শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে আকলিমা নিজে আত্মহত্যা করে।

আকলিমার বাবা মাজেদ মোল্লা বলেন, আমাদের বাড়ির সবাই ঘুমিয়ে ছিলাম। ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার মেয়ে ওড়না দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পুলিশ ময়না তদন্তের জন্য তাদের মরদেহ নিয়ে গেছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বলেন, মা ও শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। মা আকলিমা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। তিনি ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তার শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পেলে বিস্তারিত জানা যাবে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।