ডেঙ্গু প্রতিরোধে এসে ডেঙ্গুতেই মৃত্যু এক স্বাস্থ্য সহকারীর

24
Print Friendly, PDF & Email

স্পেশাল করেসপনডেন্ট, ঢাকাঃ
রাজধানীতে সরকারি আদেশে ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমে অংশ নিতে এসে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মারাই গেলেন তপন কুমার মণ্ডল নামে এক স্বাস্থ্য সহকারী। তিনি মাদারীপুর সদর উপজেলার স্বাস্থ্য সহকারী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে তিনি বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান বলে নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালটির পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যাপক ডা. সবুর মিয়া।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের বড়াইলবাড়ি গ্রামের যদুনাথ মণ্ডলের ছেলে তপন মণ্ডল। ঢাকায় এসে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। ঈদুল আজহার ছুটিতে বাড়ি ফেরার পরে অসুস্থতা বেড়ে গেলে তাঁকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেও শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ঢাকায় পাঠানো হয় চিকিৎসার জন্য। ভর্তি করা হয় বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বুধবার হাসপাতালটির নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয় তাকে। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে তিনি মারা যান।

উল্লেখ্য, স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক নির্দেশনায় ডেঙ্গু প্রতিরোধ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে স্বাস্থ্য বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে ১২৬ জন স্বাস্থ্য সহকারীকে পাঠানো হয়। সেই নির্দেশনা অনুযায়ী ২৯ জুলাই মাদারীপুর সদর উপজেলা থেকে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয়ের পক্ষ থেকে সাতজনকে পাঠানো হয় ঢাকায়। সেই দলেরই একজন ছিলেন তপন কুমার মণ্ডল। তিনি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১০ নম্বর অঞ্চলের শ্যামপুর ও জুরাইন এলাকায় ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসা সহায়তা দিতে ঢাকা আসেন।