জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে বিতর্কিত বক্তা মাহমুদুল হাসান গুনবী গ্রেপ্তার

10
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে বিতর্কিত বক্তা মাহমুদুল হাসান গুনবীকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। শুক্রবার (১৫ জুলাই) সকালে গুনবীকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি জানায় র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখা।

সংসদ ভবনে তলোয়ার নিয়ে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগে গত মে মাসে আবু সাকিব ওরফে আল আমিন নামে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করার পর রাজধানীর শেরে-বাংলা নগর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে যে মামলা হয়েছিল, সেখানে হাসান গুনবীর নামও ছিল।

নোয়াখালী থেকে নিখোঁজ হওয়ার পর গত ৯ জুলাই গুনবীর সন্ধান চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তার পরিবার। গুনবীর বাড়ি কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গুনবতী গ্রামে।

বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে র‍্যাব জানায়, নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের আধ্যাত্মিক নেতা ছিলেন মাহমুদ হাসান গুনবি। তিনি ধর্মীয় অপব্যাখা দিয়ে ভয়ভীতি তৈরি, স্বাভাবিক জীবন সম্পর্কে বিতৃষ্ণা করে তোলা, সমাজ, রাজনীতি, সংস্কৃতি ও বিজ্ঞান বিষয়ে থেকে দূরে থাকার কথা বলে উগ্রবাদী চেতনার বীজ বোনাতেন। হুজি, আনসার আল বাংলা টিমের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার পাশাপাশি দাওয়াতর ইসলামের ব্যানারে ভিন্ন ধর্মাবলম্বী ধর্ম পরিবতনের উদ্বুদ্ধ করার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়াও রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকা মসজিদেও উগ্রবাদী ওয়াজ করতেন গুনবী।

র‍্যাব বলছে, মাহমুদুল হাসান গুনবী ওয়াজ করে পরিচিতি লাভ করলেও তিনি বর্তমানে আনসার আল ইসলামের আধ্যাত্মিক নেতা। তিনি ‘মানহাজি’ নামের একটি গ্রুপের অন্যতম ব্যক্তি হিসেবে কাজ করছিলেন। তার সঙ্গে মাওলানা হারুন ইজহার ও আলী হাসান ওসামা নামে আরও দুজন দায়িত্বশীল হিসেবে কাজ করতেন। এই দুজন আগেই গ্রেফতার হয়ে কারাগারে আছেন।