ডিজিটাল ভ্যাকসিন পাসপোর্ট চালু করতে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি পলকের আহ্বান

10
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন রিপোর্ট:
বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ এর কারণে বর্তমান বিশ্ব মহাসংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এখন প্রতিযোগিতার নয় সহযোগিতা সময়। তিনি নিজেদের নিরাপত্তা, বাণিজ্য এবং পর্যটনের সুরক্ষা ও সুবিধার্থে বিভিন্ন দেশের মধ্যে ডিজিটাল কোভিড ভ্যাকসিন পাসপোর্ট চালুর জন্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান।

আইসিটি বিভাগ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

প্রতিমন্ত্রী সোমবার (৫ ‍জুলাই) কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিষয়ক ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম তৈরির জন্য ভার্চুয়াল মাধ্যমে ভারত সরকার আয়োজিত ওয়েবিনারে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান তিনি।

প্রতিমন্ত্রী করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশের আইসিটি বিভাগ সরকারি ব্যবস্থাপনায় ভ্যাকসিন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সুরক্ষা অ্যাপসহ নানা উদ্যোগের তথ্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, করোনা ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম ও সার্টিফিকেট প্রদানে সারাদেশে এ প্ল্যাটফর্ম ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

তিনি করোনা মোকাবিলায় সরকার গৃহীত কার্যক্রম যেমন- টেলিমেডিসিন, করোনা ট্রেসার বিডি, সেলফ করোনা টেস্ট, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন, ফিনান্সিয়াল সার্ভিস, ডিজিটাল কনটেন্ট মুক্তপাঠ, ই-লার্নিংসহ ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে চালুসহ বিভিন্ন কর্মসূচি চালুর কথা জানান।

তিনি বলেন, পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এসব কার্যক্রম মানুষের মানুষের জীবন-জীবিকা স্বাভাবিক রাখতে সক্ষম হচ্ছে।

তিনি করোনা মোকাবিলায় সমগ্র বিশ্বকে একসঙ্গে একসঙ্গে কাজ করারও আহ্বান জানান।

ভিডিও বার্তার মাধ্যমে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি তার বক্তব্যে করোনা মোকাবিলায় প্রযুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরেন। তিনি জানান, ভারতের তৈরি করোনা বিষয়ক অ্যাপ আরোগ্য সেতু ওপেন সোর্স প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যাবে। বিভিন্ন দেশ এটি ব্যবহার করতে পারবে।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ড. হর্ষবর্ধন, আফগানিস্তানের যোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মাসুমা কাওয়ারি, আফগানিস্তানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ড. ওয়াহিদ মাজরুহ, ভুটানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী লইনপো ডিচেন ওয়াংমো, মালদ্বীপের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, ভারতের কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, স্বাস্থ্য সচিব রাজেশ ভূষণসহ বিভিন্ন দেশের সচিব, ডাক্তার, প্রযুক্তিবিদসহ ১৪২ দেশের সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা ভার্চুয়াল ওয়েবিনারে অংশ নেন।